হেলিকপ্টারে সিলেট সিক্সার্সের চার ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদ, সাব্বির রহমান, লিটন কুমার দাস ও আল-আমিন হোসেন। ছবি: সংগৃহীত

হেলিকপ্টারে তাসকিন-সাব্বির-লিটনদের মজার সময়

সোমবার সকালে সিলেট ছুটে গিয়েছিলেন জাতীয় দলের চার ক্রিকেটার।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:১৯ আপডেট: ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:১৯
প্রকাশিত: ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:১৯ আপডেট: ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:১৯


হেলিকপ্টারে সিলেট সিক্সার্সের চার ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদ, সাব্বির রহমান, লিটন কুমার দাস ও আল-আমিন হোসেন। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) সিলেট পর্বের খেলা শেষ হয়েছে গত ১৯ জানুয়ারি। আবারও ঢাকায় ফিরেছে বিপিএল। সাত দলের ক্রিকেটাররাও ঢাকায় ফিরেছেন ইতোমধ্যে। তবে ২১ জানুয়ারি, সোমবার সকালে সিলেট গিয়েছিলেন জাতীয় দলের চার ক্রিকেটার।

মূলত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ও ইউনিলিভারের একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে সোমবার সিলেট গিয়েছিলেন তারা। সিলেট যাওয়া চার ক্রিকেটার হলেন- সাব্বির রহমান, তাসকিন আহমেদ, লিটন কুমার দাস ও আল-আমিন হোসেন। এবারের বিপিএলে চারজনই খেলছেন সিলেট সিক্সার্সের জার্সিতে।

এদিন সকালে ঢাকা থেকে হেলিকপ্টার যোগে সিলেট যান তারা। অনুষ্ঠান শেষে আবার হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় ফেরেন তাসকিন-সাব্বির-লিটনরা।

ফেরার পথে সিলেটের নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য মোবাইল ফোনে ধারণ করেন পেসার তাসকিন। হেলিকপ্টার থেকে ধারণ করা ভিডিওটি পরে পোস্ট করেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করা ভিডিওর ক্যাপশনে তাসকিন লেখেন, ‘মজার সময় ছিল।’

এ ছাড়া সিলেট ভ্রমণের কয়েকটি ছবি পোস্ট করে ডানহাতি এই পেসার লেখেন, ‘ছেলেদের সঙ্গে আজ বেশ মজার সময় ছিল।’

হেলিকপ্টারে সতীর্থদের সঙ্গে একটি সেলফি পোস্ট করে আল-আমিন লেখেন, ‘সুন্দর ভ্রমণ।’

বিপিএলে এখন পর্যন্ত সাত ম্যাচে মাত্র দুটিতে জয় পেয়েছে সিলেট। ২ জয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে তারা।

দলগতভাবে সেভাবে সাফল্য না পেলেও ২২ গজে আলো ছড়াচ্ছেন তাসকিন-সাব্বির-লিটনরা। ৭ ম্যাচে ১৪ উইকেট নিয়ে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকায় শীর্ষস্থানে রয়েছেন তাসকিন। সমান ম্যাচে ১৪১ রান করে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় দশম অবস্থানে রয়েছেন সাব্বির। ১২৪ রান নিয়ে তালিকার ১৫তম অবস্থানে লিটন।

প্রিয় খেলা/শান্ত মাহমুদ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...