মুম্বাই ইন্ডিয়ানস-কিংস ইলেভেন ম্যাচ শেষে শ্রীশান্তকে চড় মেরে শিরোনামে ওঠে এসেছিলেন হরভজন সিং। ছবি: সংগৃহীত

‘শ্রীশান্তকে চড় মারা উচিত হয়নি, আমি ক্ষমাপ্রার্থী’

‘আমার জীবনের অতীতে ফিরে গিয়ে যদি কোনো কিছু সংশোধন করতে হয় তাহলে অবশ্যই আমি এই বিষয়টি সংশোধন করব।’

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১২:৩৭ আপডেট: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১২:৩৭
প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১২:৩৭ আপডেট: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১২:৩৭


মুম্বাই ইন্ডিয়ানস-কিংস ইলেভেন ম্যাচ শেষে শ্রীশান্তকে চড় মেরে শিরোনামে ওঠে এসেছিলেন হরভজন সিং। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) প্রথম আসরের একটি ম্যাচের কথা। তারকা খচিত মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে ওই ম্যাচে সেদিন হারিয়ে দেয় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

ম্যাচ শেষে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে মুম্বাইয়ের হরভজন সিংকে ব্যাঙ্গ করেন পাঞ্জাব পেসার শ্রীশান্ত। ঘরের মাঠে হেরে এমনিতেই হতাশ ছিলেন হরভজন সিং। তার উপর শ্রীশান্তের এমন রসিকতায় মাথা গরম হয়ে যায় তার। রাগে অগ্নিশর্মা হয়ে তৎক্ষণাৎ চড় মেরে বসেন শ্রীশান্তকে। এরপরই হাউমাউ করে কাঁদতে দেখা গিয়েছিল শ্রীশান্তকে।

একে একে কেটে গেছে ১১টি বছর। বিতর্কিত এই ঘটনা নিয়ে সম্প্রতি রিয়েলিটি শো বিগবস-এ মুখ খুলেছিলেন শ্রীশান্ত। ভারতের সাবেক এই পেসার জানিয়েছিলেন, হরভজন তাকে চড় মারেননি বরং সজোরে ঘুষি মেরেছিলেন। ওই সময় চাইলে তিনিও পাল্টা হাত চালাতে পারতেন, এমনই মন্তব্য করেছিলেন শ্রীশান্ত।

ক্রন্দনরত শ্রীশান্তকে সান্ত্বনা দিচ্ছেন যুবরাজ সিং ও পাঞ্জাব মালিক প্রীতি জিনতা। ছবি: সংগৃহীত

এবার সেই ঘটনায় মুখ খুললেন হরভজন সিংও। শুধু তাই নয়, বিহাইন্ডউডসকে দেওয়া একটি সাক্ষাতকারে হরভজন সিং নিজের কৃতকর্মের জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন। হরভজনের মতে, অতীতে ফিরে গিয়ে কোনো কৃতকর্ম সংশোধন করার উপায় থাকলে অবশ্যি এই বিষয়টি সংশোধন করতেন তিনি।

ভারতের জার্সিতে ১০৩ টেস্ট, ২৩৬ টি ওয়ানডে ও ২৬টি টি-টোয়েন্টি খেলা হরভজনের ভাষ্য, ‘আমার আর শ্রীশান্তের মধ্যে যা হয়েছিল, সেটা মাঠে হয়েছিল। অনেকেই সে ঘটনা নিয়ে এখনও অনেক কথা বলেন। আমার জীবনের অতীতে ফিরে গিয়ে যদি কোনো কিছু সংশোধন করতে হয় তাহলে অবশ্যই আমি এই বিষয়টি সংশোধন করব। আমার শ্রীশান্তকে সেদিন চড় মারা উচিত হয়নি। সেটা আমার ভুল ছিল এবং আমি এর জন্য ক্ষমাপ্রার্থী। লোকে যাই বলুক, আমি এখনও শ্রীশান্তের দাদার মতো। ওর স্ত্রী, সন্তানদের প্রতি সবসময় আমার শুভকামনা থাকবে।’

প্রিয় খেলা/রুহুল