সাব্বির রহমান, শফিউল ইসলাম ও তাসকিন আহমেদ। ছবি: প্রিয়.কম

মাশরাফির রাডারে তাসকিন-শফিউল-সাব্বিররা

বিদেশি তারকা ক্রিকেটারদের ভিড়ে দেশি ক্রিকেটাররাও ছেড়ে কথা বলছেন না।

শান্ত মাহমুদ
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৮:৫৪ আপডেট: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:০৭
প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৮:৫৪ আপডেট: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:০৭


সাব্বির রহমান, শফিউল ইসলাম ও তাসকিন আহমেদ। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) চলছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসর। সাফল্য পেতে বিদেশি তারকা ক্রিকেটার উড়িয়ে এনেছে ঘরোয়া এই টি-টোয়েন্টি আসরের সাতটি দলই। প্রায় সব দলের বিদেশি ক্রিকেটারই নিজেদের প্রমাণ করে চলেছেন। দলের জয়ে রাখছেন ভূমিকা। বিদেশি তারকা ক্রিকেটারদের ভিড়ে দেশি ক্রিকেটাররাও ছেড়ে কথা বলছেন না। সিনিয়র থেকে শুরু করে সম্ভাবনাময় তরুণ ক্রিকেটাররাও ব্যাটে-বলে আলো ছড়াচ্ছেন।

এদের মধ্যে তিনজন ক্রিকেটারকে আগামী ফেব্রুয়ারিতে নিউজিল্যান্ড সফরে দলে ফেরানোর আভাস দিলেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। বর্তমানে দলের বাইরে থাকা সেই তিন ক্রিকেটার হলেন তাসকিন আহমেদ, শফিউল ইসলাম ও সাব্বির রহমান। মাশরাফির মতে, বিপিএলে এখন পর্যন্ত ভালো করা এই তিন ক্রিকেটারের সুযোগ আছে আসন্ন নিউজিল্যান্ড সফরে দলে জায়গা করে নেওয়ার।

চলতি বিপিএলে এখন পর্যন্ত দারুণ ছন্দে আছেন তাসকিন আহমেদ। সিলেট সিক্সার্সের হয়ে ৭ ম্যাচে ১৪ উইকেট নিয়েছেন ডানহাতি এই পেসার। যা এখন পর্যন্ত বিপিএলের সর্বোচ্চ। সমান ১৪ উইকেট নেওয়া সাকিব আল হাসানের সঙ্গে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকায় যৌথভাবে শীর্ষে রয়েছেন তরুণ এই পেসার।

মাশরাফি বিন মুর্তজার দল রংপুর রাইডার্সের হয়ে বল হাতে আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন শফিউল ইসলাম। ৮ ম্যাচে মাশরাফির সমান ১৩ উইকেট নিয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকায় যৌথভাবে দ্বিতীয় স্থানে আছেন ডানহাতি এই পেসার। সিলেটের হয়ে খেলা সব্বির‍ রহমান শুরুতে নিজেকে খুঁজে না পেলেও রংপুরের বিপক্ষে খেলেছেন ৫১ বলে ৮৫ রানের দারুণ এক ইনিংস। এই এক ইনিংস দিয়ে সাব্বিরকে বিচার না করলেও ইনিংসটি মনে ধরেছে মাশরাফির।

মঙ্গলবার খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে ৬ উইকেটের জয় পাওয়ার পর সংবাদ সম্মেলনে নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য ক্রিকেটার বাছাই করার প্রসঙ্গে মাশরাফি এই তিন ক্রিকেটারের নাম উল্লেখ করে বলেন, ‘আমার মনে হয় তাসকিন ভালো করছে, শফিউল ভালো করছে। একটা ম্যাচে সাব্বির ভালো করেছে, ও যদি এখন পারফর্ম করে যেতে পারে ভালো হবে। কিছু জায়গা আছে, এরা যদি ভালো করে সুযোগ থাকবে। টুর্নামেন্টের আরও তো বাকি আছে।’

তবে ৭ ম্যাচে ১৪১ রান করা সাব্বির মাত্র একটি ইনিংসে নিজের সহজাত ক্রিকেট খেলতে পেরেছেন। এই এক ইনিংস দিয়েই তাকে বিচার করা ঠিক হবে কি না? জবাবে মাশরাফি বলেন, ‘দলে আসার কথা বলছি না। টপ অর্ডার থেকে ছয় নম্বর পর্যন্ত বিরাট চেইঞ্জের সুযোগ আছে। হয়তো এক্সট্রা বোলার, দুইজন এক্সট্রা ব্যাটসম্যান নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে ওদের নিয়ে যাওয়ার সুযোগ থাকতে পারে। এখানে এক্সট্রা ব্যাটসম্যানের ক্ষেত্রে সাব্বির আছে, মোসাদ্দেক আছে। ওদের মধ্যে যে ভালো করে তাদের চান্স বাড়বে।’

ফেব্রুয়ারিতে ছয় মাসের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের নিষেধাজ্ঞা শেষ করতে যাওয়া সাব্বিরের দিকে বিপিএলে নজর থাকবে মাশরাফির। ভালো করলেই কেবল তাকে বিবেচনায় আনা হবে। বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক বলেন, ‘সাব্বির এখনও বলার মতো কিছু করেছে, সেটা বলব না। তবে শেষ ম্যাচে আমাদের সাথে যে ইনিংসটা খেলেছে, এমন সামর্থ্য দেখে ওকে জাতীয় দলে নেয়া হয়। ওর কাছ থেকে আসলে আশা অনেক। আশা করি সে কন্টিনিউ করবে। নির্দিষ্ট করে দেখলে কিছু কিছু জায়গায় ব্যাকআপের জন্য ফাঁকা আছে। এখন ডিপেন্ড করছে ওরা কেমন পারফর্ম করে।’

প্রিয় খেলা/শান্ত মাহমুদ