মঙ্গলবার বিটিআরসি কার্যালয়ে মোবাইল হ্যান্ডসেটের তথ্য নিয়ে একটি ডেটাবেজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। ছবি: প্রিয়.কম

মাদারবোর্ড বানাবে বাংলাদেশ

ফাইভজি চালু নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থানের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা কোনো অবস্থাতেই পৃথিবী থেকে এক চুল দূরেও থাকব না ফাইভজি লঞ্চ করার ক্ষেত্রে।’

রাকিবুল হাসান
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ২২:১০ আপডেট: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ২২:১১
প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ২২:১০ আপডেট: ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ২২:১১


মঙ্গলবার বিটিআরসি কার্যালয়ে মোবাইল হ্যান্ডসেটের তথ্য নিয়ে একটি ডেটাবেজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) ল্যাপটপ, মোবাইলের পর বাংলাদেশ মাদারবোর্ড তৈরির যুগে প্রবেশ করছে বলে জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

২২ জানুয়ারি, মঙ্গলবার বিটিআরসি কার্যালয়ে এসএমএসে বৈধ-অবৈধ হ্যান্ডসেট যাচাই এবং এ খাতে অন্যান্য সুবিধা তৈরিতে মোবাইল হ্যান্ডসেটের তথ্য নিয়ে একটি ডেটাবেজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘বহুজন বিশ্বাস করে নাই যে, আমরা ল্যাপটপ বানাব, আমরা ফোন বানাব। আজ আমি গর্বের সঙ্গে বলতে পারি, আমরা এসব তো ক্রস করেই ফেলছি, আমরা এখন মাদারবোর্ড বানানোর যুগে পৌঁছে গেছি। আজকালের মধ্যে মাদারবোর্ড বানানোর জন্য যেসব কম্পোনেন্টগুলো রয়েছে, সেগুলোর ওয়ান পার্সেন্ট ডিউটির এসআরও হয়তো পেয়ে যাব।’

‘ফলে এটি একটি নতুন দিগন্ত উন্মোচন করবে। বাংলাদেশের ডিজিটাল ডিভাইস তৈরির জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ চ্যালেঞ্জিং কম্পোনেন্ট, তার নাম মাদারবোর্ড। এটি বাংলাদেশে বানাব আমরা।’

তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবলে বাংলাদেশের অংশ গ্রহণের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবলে প্রবেশ করতে চাই। সিমিউই-৬ কনসোর্টিয়ামে গঠিত হচ্ছে। বাংলাদেশ এই কনসোর্টিয়ামের অংশ হিসেবে তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবলে অংশ নিতে যাচ্ছে। এটি একটি বিশাল রকমের অর্জন। এই অর্জন বাংলাদেশের কানেকটিভিটির ইস্যুকে তরান্বিত করে দেবে।’

‘বাংলাদেশের মানুষ সম্পর্কে অন্যদের ধারণা খুব একটা স্পষ্ট, তা মনে হয় না। আমি যখন এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নেই, তখন আমরা ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করতাম ৫৫০ গিগাহার্টজ। এখন এই ব্যান্ডউইথ ডাবলের উপর গেছে, টেরাবাইট ক্রস করে গেছে। এতে বোঝা যায় বাংলাদেশের মানুষ কয়েক মাসের ভেতরে তার ব্যান্ডউইথের ব্যবহার ডাবল করে ফেলেছে।’

বাংলাদেশ সরকার বঙ্গবন্ধু-২ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের প্রস্তুতি নিয়েছে এবং এই সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান মোস্তাফা জব্বার।

ফাইভজি চালু নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থানের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা কোনো অবস্থাতেই পৃথিবী থেকে এক চুল দূরেও থাকব না ফাইভজি লঞ্চ করার ক্ষেত্রে। আমি আশা করব, যারা যেখানে যে অবস্থাতেই আছেন, তারা ফাইভজির জন্য প্রস্তুত থাকবেন। ফাইভজিতে এক পা পিছিয়ে থাকার কোনো ইচ্ছা নাই।’

হ্যান্ডসেটের আইএমইআই নম্বর তথ্য ভান্ডারের বিষয়ে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তির ইতিহাসে এটি মাইলফলক মুহূর্ত। চুরি করে হ্যান্ডসেট আমদানি করায় যে রাজস্ব ক্ষতি হতো, তা (ঠেকানো) প্রযুক্তি ছাড়া সম্ভব নয়, এখন করা যাব।’

প্রিয় প্রযুক্তি/শান্ত