ম্যান ইউর জার্সিতে অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া। ছবি: সংগৃহীত

ম্যান ইউতে নিজের অন্ধকার অধ্যায় নিয়ে মুখ খুললেন ডি মারিয়া

ম্যান ইউতে কাটানো অন্ধকার অধ্যায় নিয়ে চার বছর পর মুখ খুললেন আর্জেন্টিনা জাতীয় দলে মেসি-হিগুয়েনদের এই সতীর্থ।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:৫৯ আপডেট: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:৫৯
প্রকাশিত: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:৫৯ আপডেট: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:৫৯


ম্যান ইউর জার্সিতে অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) অনেকটা হইহুল্লোড় করেই রেকর্ড ৬০ মিলিয়ন পাউন্ডে অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়াকে দলে ভিড়িয়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। তৎকালীন ম্যান ইউ কোচ লুই ফন গালের ভাষায় ডি মারিয়া ছিলেন বিশ্বমানের। কিন্তু বিশ্বমানের এই ফুটবলারকে দিয়ে কিছুই করে নিতে পারেনি রেড ডেভিলরা।

ইংলিশ জায়ান্টদের হয়ে ভালো সময় কাটেনি আর্জেন্টাইন এই উইঙ্গারের। ২০১৪-১৫ মৌসুমে ম্যান ইউর হয়ে ২৭ ম্যাচ খেলা ডি মারিয়া মাত্র ৩টি গোলের দেখা পান। ভবিষ্যত বুঝে এক বছরের মাথায় প্যারিস সেইন্ট জার্মেইতে পাড়ি জমান তিনি। কিন্তু ম্যান ইউতে কী সমস্যা ছিল ডি মারিয়ার যে, নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন লম্বা সময় ধরে?

চার বছর পর সেসব নিয়ে মুখ খুললেন আর্জেন্টিনা জাতীয় দলে মেসি-হিগুয়েনদের এই সতীর্থ। জানালেন ম্যান ইউতে সেরাটা দেওয়ার জন্য তাকে কোনো সুযোগই দেওয়া হয়নি।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পুরনো ক্লাব ম্যান ইউর বিপক্ষে খেলতে এই মুহূর্তে ইংল্যান্ডে আছে ডি মারিয়া ও তার দল পিএসজি। পুরনো ঠিকানায় ফিরতেই যেন দুঃস্বপ্নের কথা মনে পড়ে গেল আর্জেন্টাইন এই ফুটবলারের। রেড ডেভিলদের হয়ে খেলা সেই এক বছর নিয়ে ডি মারিয়ে বলেছেন, ‘আমি এখানে মাত্র এক বছর ছিলাম, যেটা আমার ক্যারিয়ারের সেরা সময় ছিল না অথবা তারা আমাকে আমার সেরা খেলাটা খেলতে দেয়নি।’

এতটুকু বলেই থামেননি ডি মারিয়া। ম্যান ইউর তৎকালীন কোচ ফন গালকে নিয়ে তিনি বলেন, ‘ওই সময় কোচের সঙ্গে আমার ঝামেলা হচ্ছিল। কিন্তু ঈশ্বরকে ধন্যবাদ যে, আমি পিএসজিতে আসতে পেরেছি এবং নিজের মতো করে খেলতে পারছি।’

শেষ ষোলোর প্রথম লেগের মোকাবেলায় আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মুখোমুখি হবে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই। ম্যাচটি ম্যান ইউর ঘরের মাঠ ওল্ড ট্রাফোর্ডে অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয় লেগে আগামী ৭ মার্চ পিএসজির ঘরের মাঠ পার্স ডেস প্রিন্সেসে লড়বে দুই দল।

প্রিয় খেলা/শান্ত মাহমুদ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...