তরুণীকে অস্ত্রের মুখে ইয়াবা সেবনে বাধ্য করে একাধিকবার ধর্ষণ করা হয়। ছবি: সংগৃহীত

ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার দুই পুলিশ কর্মকর্তা

প্রাথমিক তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পুলিশ বলে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৪১ আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৪১
প্রকাশিত: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৪১ আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৪১


তরুণীকে অস্ত্রের মুখে ইয়াবা সেবনে বাধ্য করে একাধিকবার ধর্ষণ করা হয়। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় তরুণী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হলেন, সাটুরিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সেকেন্দার হোসেন ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মাজহারুল ইসলাম।

১১ ফেব্রুয়ারি, সোমবার রাতে নির্যাতনের শিকার তরুণী সাটুরিয়া থানায় মামলা করার পর, রাত ৩টার দিকে ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে পুলিশ লাইন থেকে গ্রেফতার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আমীনুল ইসলাম।

ডাকবাংলোতে এক তরুণীকে দুদিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠায় মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া থানার দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছিল। গত বুধবার পাওনা টাকা আদায় করতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হন ওই তরুণী।

ভুক্তভোগীর অভিযোগ, এসআই সেকেন্দার হোসেন তার খালার কাছ থেকে পাঁচ বছর আগে লাভসহ ফেরত দেওয়ার কথা বলে এক লাখ টাকা নেন। কিন্তু বারবার ফেরত চেয়েও টাকা পাওয়া যাচ্ছিল না। ওই পাওনা টাকা আনতে গত বুধবার বিকাল পাঁচটার দিকে খালার সঙ্গে সাটুরিয়া থানায় যান তিনি। সেখানে সেকেন্দার হোসেনের সঙ্গে দেখা হলে তিনি দুই জনকে নিয়ে সাটুরিয়া ডাকবাংলোয় যান। কিছুক্ষণ পরে সেখানে উপস্থিত হন একই থানার আরেক এএসআই মাজহারুল ইসলাম। কিছুক্ষণ পর তাকে ও তার খালাকে আলাদা ঘরে নিয়ে আটকে রাখে পুলিশের ওই দুই কর্মকর্তা। একপর্যায়ে ওই তরুণীকে অস্ত্রের মুখে ইয়াবা সেবনে বাধ্য করা হয়। পরে একাধিকবার ধর্ষণ করা হয়। শুক্রবার সকাল পর্যন্ত আটকে রেখে তাদের দুই জনকে ডাকবাংলো থেকে বের করে দেয় তারা।

এদিকে ১১ ফেব্রুয়ারি সোমবার দুপুরে সাংবাদিকদের পুলিশ সুপার (এসপি) রিফাত রহমান শামিম জানান, প্রাথমিক তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পুলিশ বলে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।

তদন্ত কমিটির সদস্যরা হলেন- মানিকগঞ্জ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাফিজুর রহমান ও ডিএসবির সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার হামিদুর রহমান সিদ্দিকী।

প্রিয় সংবাদ/আশরাফ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...