প্রধান নির্বাচক ও ভারতের সাবেক ক্রিকেটার অমিত ভান্ডারি ও তার জখম পা। ছবি: সংগৃহীত

দলে না নেওয়ায় মাঠেই প্রধান নির্বাচককে বেধড়ক পেটালেন ভারতীয় ক্রিকেটার!

পুরো হিন্দি সিনেমার মতো করে প্রধান নির্বাচক ও ভারতের সাবেক এই পেসারকে পেটানোর তোড়জোড় শুরু হয়ে যায়।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৪৯ আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৪৯
প্রকাশিত: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৪৯ আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৪৯


প্রধান নির্বাচক ও ভারতের সাবেক ক্রিকেটার অমিত ভান্ডারি ও তার জখম পা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) দিল্লির সেন্ট স্টিফেনস মাঠে আসন্ন সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের জন্য প্রস্তুতি চলছিল। প্রাথমিক দলের ট্রায়াল ম্যাচ খেলছিল নিজেদের মধ্যে। দিল্লি দলের নির্বাচক প্রধান অমিত ভান্ডারিও ছিলেন সেখানে। হুট করে মাঠে ঢুকে পড়েন অনুজ দেড়া নামের দিল্লিরই এক অনূর্ধ্ব-২৩ ক্রিকেটার, যিনি জায়গা পাননি দলে।

মাঠে ঢুকে নির্বাচক প্রধানের কাছে এসে ওই ক্রিকেটার জানতে চান, কোন যুক্তিতে তাকে অনূর্ধ্ব-২৩ দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে? শিষ্যের এমন ঔদ্ধত্য আচরণ দেখে মেজাজ হারান ভারতের সাবেক পেসার ও দিল্লি দলের প্রধান নির্বাচক অমিত। এতে কিছুক্ষণের মধ্যে প্রধান নির্বাচককে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন ওই ক্রিকেটার।

কিছুক্ষণ পরই পনেরো জনের মতো ছেলে নিয়ে ফের মাঠে উপস্থিত হন অনুজ দেড়া। প্রত্যেকের হাতেই ছিল লাঠিসোঁটা ও হকিস্টিক। পুরো হিন্দি সিনেমার মতো করে প্রধান নির্বাচককে পেটানোর তোড়জোড় শুরু হয়ে যায়। প্রধান নির্বাচকের অবস্থা দেখে তাকে বাঁচাতে ছুটে আসেন দিল্লি দলের অন্যান্য ক্রিকেটাররা।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, ওই ক্রিকেটাররাও পাল্টা ব্যাট, উইকেট নিয়ে দল বেধে দাঁড়িয়ে যান! কিন্তু অনুজের সঙ্গে থাকা ছেলেদের পক্ষ থেকে শাসানো হয়, ক্রিকেটাররা সরে না গেলে তাদের কপালেও দুঃখ আছে। প্রয়োজনে গুলি চালানোর ব্যাপারে দু’বার ভাবা হবে না! প্রাণভয়ে ভীত ক্রিকেটাররা এরপর পিছু হটেন।

পরবর্তী সময়ে অনুজ ও তার সঙ্গীরা প্রবল উদ্যমে তাড়া করে অমিতকে। একপর্যায়ে তাকে বাগে পেয়ে প্রধান নির্বাচকের হাঁটু ও মাথায় হকিস্টিক দিয়ে প্রচণ্ড জোরে আঘাত করে। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে মাথায় চারটি সেলাই করতে হয়। ঘটনাটি আলোড়ন তুলেছে ভারতীয় ক্রিকেটে।

মাথায় ও পায়ে গুরুতর আঘাত পান প্রধান নির্বাচক। ছবি: সংগৃহীত

দিল্লি দলের প্রধান নির্বাচক ও সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটারকে মারার ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও চলছে নিন্দার ঝড়। ভারতীয় সমর্থকদের পাশাপাশি নিন্দার ঝড় তুলেছেন গৌতম গম্ভীর, বীরেন্দর শেবাগ থেকে শিখর ধাওয়ানরাও। দিল্লিরই সাবেক ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর তো অনুজ নামের ওই অপরাধী ক্রিকেটারের আজীবনের জন্য নির্বাসন চেয়েছেন।

এক টুইটে ভারতের সাবেক এই ওপেনার লিখেছেন, ‘ভাবতেই পারছি না, দেশের রাজধানীতে এমন কাণ্ড ঘটেছে। আমি ব্যক্তিগতভাবে দেখব, যাতে এটা ধামাচাপা না পড়ে। যে ক্রিকেটার এই কাণ্ড ঘটিয়েছে, গুণ্ডা নিয়ে এসেছে, তার আজীবন নির্বাসন হওয়া দরকার।’

পুরো ঘটনার তদন্তে নেমেছে দিল্লি পুলিশও। দিল্লির ডেপুটি কমিশনার অব পুলিশ (উত্তর) নুপুর প্রসাদ এরই মধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন, আহতের সঙ্গে কথা বলে অভিযোগ জমা করা হয়েছে।

দিল্লি ক্রিকেট সংস্থা (ডিডিসিএ) থেকেও এফআইআর করা হয়েছে অভিযুক্ত ক্রিকেটার অনুজের বিরুদ্ধে। ভারতীয় গণমাধ্যমের সর্বশেষ খবর, এই ঘটনায় দু'জনকে গ্রেফতার করেছে দিল্লি পুলিশ।

যত দিন যাচ্ছে, দিল্লিতে ক্রিকেট আর বিদঘুটে ঘটনা যেন সমার্থক হয়ে যাচ্ছে। বছর দেড়েক আগে দিল্লিতেই রঞ্জি ট্রফি ম্যাচ চলাকালীন এক ব্যক্তি গাড়ি চালিয়ে মাঠে ঢুকে পড়েছিলেন! পিচে উঠে চক্কর দিতে শুরু করেছিলেন। তীব্র আতঙ্কে ক্রিকেটাররা সে দিন প্রশ্ন তুলেছিলেন নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে। কে জানত, বছর দেড়েকের মধ্যে দিল্লি ক্রিকেটার-কোচদের নিরাপত্তা সত্যি সত্যি সংকটে পড়বে?

প্রিয় খেলা/রিমন

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...