প্রচ্ছদ: মশিউর রহমান

একুশে গ্রন্থমেলায় ভৌতিক উপন্যাস ‘দেও’

রূপবান এক পুরুষ ভালোবেসে বিয়ে করেছেন খুব ভালোবাসার মেয়েটিকে। কিন্তু দুজনের মাঝে এই ছায়ামূর্তি কার? অশরীরী এক কুৎসিত অস্তিত্বের উপস্থিতিতে দুর্বিষহ দুটি মানুষের জীবন। একজন বদ্ধ উন্মাদ, অন্যজন...

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:০৯ আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:০৯
প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:০৯ আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:০৯


প্রচ্ছদ: মশিউর রহমান

(প্রিয়.কম) একুশে গ্রন্থমেলার প্রথম দিনেই এসেছে রুমানা বৈশাখীর নতুন ভৌতিক উপন্যাস ‘দেও’। এ ছাড়াও এবারের মেলায় লেখকের ‘জামান সাহেবের স্ত্রী’ বইটি প্রকাশিত হয়েছে বর্ষা দুপুর থেকে এবং জাগৃতি প্রকাশনী প্রকাশ করেছে ভৌতিক গল্প সংকলন ‘মিরিত্তু’।

‘দেও’ বইটি একুশে গ্রন্থমেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ২৪৩-২৪৪-২৪৫-২৪৬ বিদ্যা প্রকাশের স্টলে পাওয়া যাবে। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন মশিউর রহমান এবং মূল্য রাখা হয়েছে ২০০ টাকা।

কাহিনি সংক্ষেপ

চিরপরিচিত এই ভুবনের আড়ালে আছে অন্য একটি ভুবন। পরাবাস্তবতার ভুবন, অপার্থিব প্রাণীদের ভুবন। সে ভুবনের গল্পগুলো ক’জনেই বা জানে?

সাদামাটা মেয়ে সালমা যখন গ্রাম থেকে এসে শহরে সংসার পাতে, সঙ্গী হয় অসংখ্য ইঁদুর। সালমা বলে, ইঁদুরগুলো তার পোষ মানানো। সত্যিই কি সালমা বুঝতে পারে বিচিত্র সেই প্রাণীগুলোর ভাষা?

রূপবান এক পুরুষ ভালোবেসে বিয়ে করেছেন খুব ভালোবাসার মেয়েটিকে। কিন্তু দুজনের মাঝে এই ছায়ামূর্তি কার? অশরীরী এক কুৎসিত অস্তিত্বের উপস্থিতিতে দুর্বিষহ দুটি মানুষের জীবন। একজন বদ্ধ উন্মাদ, অন্যজন...

রমজান আলীর সারা জীবন কেটে গেছে এক নারীর প্রতীক্ষায়। সে প্রেত নাকি মানুষ, তা আজতক জানতে পারেননি তিনি। কেবল জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করেছেন...আসবে সে, বহুকাল আগে করে যাওয়া ওয়াদা পূরণ করার জন্যে আসবেই সে...

সে অমর, অক্ষয়, সে অনন্ত যৌবনা।

সে...কিংবা তারা...

পরাবাস্তবতার ভয়াল এক প্রাণী ‘দেও’।

প্রিয় সাহিত্য/আজাদ চৌধুরী