বিমানে হজযাত্রীরা। ছবি সংগৃহীত

১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ১০ মার্চ পর্যন্ত হজযাত্রীদের নিবন্ধন

সরকারি ব্যবস্থাপনায় নিবন্ধনের সময়সীমা ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ মার্চ পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়েছে।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:১৭ আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:১৭
প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:১৭ আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:১৭


বিমানে হজযাত্রীরা। ছবি সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) এ বছর হজযাত্রীদের হজ নিবন্ধনের সময় নির্ধারণ করে দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। সরকারি ব্যবস্থাপনায় নিবন্ধনের সময়সীমা ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ মার্চ পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়েছে। আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় নিবন্ধন করা যাবে ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ১০ মার্চ পর্যন্ত।

১৩ ফেব্রুয়ারি, বুধবার ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে হজযাত্রীদের নিবন্ধনের নির্দেশনা দেওয়া হয়।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক-নিবন্ধনকারীদের সর্বশেষ ২২ হাজার ৭৬৪ ক্রমিক নম্বর ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় চার লাখ ৭৯ হাজার ৮১৫ ক্রমিক নম্বর নির্ধারণ করে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সরকারি ও বেসিরকারি উভয় ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের নিবন্ধনের জন্য এমআরপি পাসপোর্ট থাকতে হবে। পাসপোর্টর মেয়াদ থাকতে হবে হজের দিন থেকে পরবর্তী ছয় মাস অর্থাৎ, ২০২০ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। 

এর আগে গত ১১ ফেব্রুয়ারি মন্ত্রিসভা বৈঠকে ‘জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি-২০১৯’ এবং ‘হজ প্যাকেজ-২০১৯’-এর খসড়া অনুমোদন দেওয়া হয়। এবার সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজে যেতে প্যাকেজ-১-এ চার লাখ ১৮ হাজার পাঁচশ টাকা এবং প্যাকেজ-২-এ তিন লাখ ৪৪ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় তিন লাখ ৪৪ হাজার টাকার কম নেওয়া যাবে না।

কোরবানির খরচ ৪৭৫ রিয়াল থেকে বাড়িয়ে ৫২৫ রিয়াল করা হয়েছে। বেসরকারিভাবে প্লেন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে এক লাখ ২৮ হাজার টাকা। বাংলাদেশ থেকে এবার এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজে যেতে পারবেন।

প্রিয় সংবাদ/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...