লিওনেল মেসির পাঠানো জার্সি গায়ে মুর্তাজা আহমাদি। ছবি: সংগৃহীত

উদ্বাস্তু মেসি-ভক্ত এখন গৃহবন্দী!

ক্রমাগত হুমকিতে অনেক আগেই বাড়ি ছেড়েছে মুর্তজার পরিবার। কিন্তু তাতেও যেন স্বস্তি নেই।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৩৫ আপডেট: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৩৫
প্রকাশিত: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৩৫ আপডেট: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৩৫


লিওনেল মেসির পাঠানো জার্সি গায়ে মুর্তাজা আহমাদি। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) মুর্তাজা আহমাদির জন্য খ্যাতির বিড়ম্বনা নতুন কোনো ঘটনা নয়। ২০১৬ সালের শুরুতে আলোচনায় উঠে এসেছিলেন এই আফগান শিশু। পলিথিনের ব্যাগ কেটে লিওনেল মেসির জার্সি তৈরি করে বিশ্ববাসীর নজর কেড়ে নেন গজনী প্রদেশের ওই শিশু।

মেসির প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসার পুরস্কারও পান মুর্তাজা। আফগানিস্তানের ওই খুদে ভক্তের জন্য স্বাক্ষর করা জার্সি ও ফুটবল পাঠান বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা মেসি। এখানেই শেষ নয়, মেসির সাক্ষাৎ পর্যন্ত পেয়ে যান মুর্তাজা। কিন্তু মুর্তজার জন্য এটাই যেন কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ক্রমাগত হুমকিতে অনেক আগেই বাড়ি ছেড়েছে মুর্তজার পরিবার। সেটাও দুয়েকবার নয়, বেশ কয়েকবার বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছেন তারা। উপায় না পেয়ে সপরিবারে ভাড়া বাড়িতে উঠেছেন তারা।

মুর্তাজার মা শাফিকা বলেন, ‘অনেকেই বলছে তালেবানরা আমার ছেলেকে খুঁজছে। ফোন করেও তারা নিয়মিত হুমকি দিচ্ছে। ওরা খুঁজে পেলে আমার ছেলেকে টুকরো টুকরো করে কেটে ফেলবে। তাই আমি সব সময় ওর মুখ ঢেকে রাখার চেষ্টা করি।’

সেখানেও যেন স্বস্তি নেই। তালেবান আতঙ্কে ভাড়া বাড়িতেও, এখন কার্যত গৃহবন্দী জীবন-যাপন করতে হচ্ছে মেসির এই খুদে ভক্তকে। উপায় না পেয়ে দেশ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মুর্তাজা পরিবার।

মেসির খুদে ভক্তের বিখ্যাত হয়ে ওঠার গল্পটা সবারই জানা। ছবি: সংগৃহীত

মুর্তাজার বাবা আরিফ আহমাদি বলেন, ‘আমাদের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। ফোনে ক্রমাগত হুমকি দেওয়া হয়। ভয় হচ্ছে, আমার ছেলেকে না অপহরণ করে নেওয়া হয়। এই ভয়ে আমরা দেশ ত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

মেসির খুদে ভক্তের বিখ্যাত হয়ে ওঠার গল্পটা সবারই জানা। আফগানিস্তানের যুদ্ধবিধ্বস্ত অঞ্চলে দারিদ্র্যের মধ্যে বেড়ে উঠেছে মুর্তাজা আহমাদি। জার্সি কেনার সামর্থ্য না থাকায় পাঁচ বছর বয়সে পলিথিন দিয়েই মেসির নামাঙ্কিত জার্সি তৈরি করেছিল সে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কল্যাণে পলিথিনের তৈরি জার্সি গায়ে তোলা মুর্তাজার ছবি রাতারাতি ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে। মেসির প্রতি ভক্তের এমন ভালোবাসা দেখে আবেগে ভেসেছিল মেসিসহ গোটা ফুটবল-দুনিয়া।

তালবানদের ধারণা, উপহার ছাড়াও মুর্তাজাকে প্রচুর টাকা দিয়েছেন মেসি। সেই টাকাই তারা চায়। হুমকি দেওয়া হচ্ছে, টাকা না দেওয়া হলে মুর্তাজাকে অপহরণ করা হবে! এজন্যই তারা ক্রমাগত হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...