হাইকোর্টের ফাইল ছবি

ক্ষমা চেয়ে অব্যাহতি পেলেন অতিরিক্ত দায়রা জজ মো. মনজুর ইমাম

হাইকোর্টের রুল বিচারাধীন থাকা অবস্থায় কীভাবে তিনি জামিনের মেয়াদ বৃদ্ধি করলেন, এ বিষয়ে চাওয়া হয় মনজুর ইমামের কাছে।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:১৭ আপডেট: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:১৭
প্রকাশিত: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:১৭ আপডেট: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:১৭


হাইকোর্টের ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) মাদকের মামলার এক আসামির জামিনের মেয়াদ বৃদ্ধিসংক্রান্ত বিষয়ে আদালতে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দেওয়ার পর অব্যাহতি পেলেন ঢাকা মহানগর আদালতের অতিরিক্ত দায়রা জজ মো. মনজুর ইমাম।

১৪ ফেব্রুয়ারি, বৃহস্পতিবার বিচারপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি রিয়াজ উদ্দিনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে তিনি হাজির হয়ে ঘটনার ব্যাখ্যা দেওয়ার পাশাপাশি ক্ষমা প্রার্থনা করে অব্যাহতি পান।

আদালতের এ আদেশের বিষ আসামিপক্ষের আইনজীবী আল রাজী মো. আমীর প্রিয়.কমকে জানান, ঢাকার একটি ইয়াবা মামলার আসামি কবির হোসেন গ্রেফতার হয়ে কারাগারে যান ২০১৮ সালে। এরপর তিনি ঢাকা মহানগর আদালতের অতিরিক্ত দায়রা জজ মো. মনজুর ইমামের আদালতে জামিন আবেদন করেন। আদালত তার জামিন নাকচ করলে তিনি হাইকোর্টে আবেদন করেন। শুনানি করে আদালত তাকে ১ মাসের জামিন দেয়। আসামির মা গেছে, এই গ্রাউন্ডে জামিন দেওয়া হয়।

একইসঙ্গে হাইকোর্ট আসামিকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পন করতে এবং এ ঘটনায় তার আইনজীবীকে একটি অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়।

এরপর চলতি বছরের জানুয়ারিতে আসামি মনজুর ইমামের আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিনের মেয়াদ বৃদ্ধির আবেদন করলে তার মেয়াদ বাড়ানো হয় এক মাসের জন্য। আদেশ অনুযায়ী গত ৩০ জানুয়ারী হাইকোর্টে কবির হোসেনের আইনজীবী আল রাজী মো. আমীর অগ্রগতি প্রতিবেদন জমা দেন।

অগ্রগতি প্রতিবেদন জমার দিন হাইকোর্ট মনজুর ইমামকে আসামির জামিনের মেয়াদ বৃদ্ধির বিষয়ে ব্যাখা দিতে ৪ ফেব্রুয়ারি আদালতে হাজির হতে বলে। হাইকোর্টের রুল বিচারাধীন থাকা অবস্থায় কীভাবে তিনি জামিনের মেয়াদ বৃদ্ধি করলেন, এ বিষয়ে চাওয়া হয় মনজুর ইমামের কাছে। আজকে উপস্থিত হয়ে ব্যাখা দেন ও ক্ষমা প্রার্থনা করেন। এ মামলার পরবর্তী শুনানি ২৬ ফেব্রুয়ারি।

প্রিয় সংবাদ/রিমন

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...