সব্যসাচী বোলার অক্ষয় কারনেওয়ার। ছবি: সংগৃহীত

দুই হাতে বোলিং করে তাক লাগিয়ে দিলেন ভারতীয় ক্রিকেটার

ভারতীয় এই ক্রিকেটারের বাবা একজন বাস চালক। বাবা যেমন জীবন সংগ্রামে হার মানেননি, তিনিও কোনো কিছু শুরু করে ছেড়ে দেননি।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:২৮ আপডেট: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:২৮
প্রকাশিত: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:২৮ আপডেট: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:২৮


সব্যসাচী বোলার অক্ষয় কারনেওয়ার। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ইরানি কাপে অবশিষ্ট ভারতের বিপক্ষে বোলিং করছিলেন বিদর্ভের অলরাউন্ডার অক্ষয় কারনেওয়ার। ইনিংসের ৬৩তম ওভারের খেলা চলছিল। বাঁহাতি স্পিনার অক্ষয় হঠাৎ হাত পাল্টে নিলেন। এরআগে আম্পায়ারকে জানালেন বাঁহাতে নয়, ডান হাতে অফ স্পিন করবেন তিনি। অক্ষয় সম্পর্কে ধারণা থাকায় আম্পায়ার অবাক না হলেও ব্যাটসম্যানের রীতিমতো ভিরমি খাওয়ার মতো অবস্থা।

সবাইকে অবাক করে ওই ওভারে ডানহাতে বোলিং করেন অক্ষয়। এই ওভারের পর তার দুই হাতে বোলিং করার ব্যাপারটি আবারো আলোচনায় এসেছে। এরআগেও একইভাবে আলোচনার বিষয়বস্তু হয়েছেন সব্যসাচী এই বোলার। অক্ষয়ের এমন পারদর্শিতা দেখে চোখ কপালে ওঠার জোগাড় হয়েছিল ভারতের ওপেনার রোহিত শর্মারও।

ইন্ডিয়ান অয়েলের হয়ে এক সঙ্গে খেলেছেন অক্ষয় ও রোহিত। পরে জাতীয় দলের নেটে অক্ষয়কে ডেকেছিলেন রোহিত। গত বছর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচেও দুই হাতে বোলিং করে নজর কেড়েছিলেন অক্ষয়।

অনেকের কাছেই অক্ষয়ের এই ব্যাপারটি রীতিমতো বিস্ময়ের। কিন্তু এই বিস্ময় জাগানো কাজটি বেশ আগে থেকে করে আসছেন মহারাষ্ট্রের ইয়াবতমল জেলার দরিদ্র এক পরিবার থেকে উঠে আসা এই ক্রিকেটার।

বিসিসিআইয়ের পোস্ট। 

গত কয়েক বছরে প্রথম শ্রেণি, লিস্ট ‘এ’ এবং টি-টোয়েন্টি ম্যাচে বেশ কয়েকবার দুই হাতে বোলিং করেছেন অক্ষয়। তার দুই হাতে বোলিং করার ব্যাপারটি নির্ভর করে দলের প্রয়োজনীয়তার ওপর। দল চাইলে দুই হাতেই বোলিং করেন ২৬ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

অক্ষয়ের সব্যসাচী বোলার হয়ে ওঠার গল্পটা বেশ মজার। শুরুতে তিনি ডানহাতি অফ স্পিনার ছিলেন। কিন্তু থ্রো করতেন বাঁহাতে। এটা দেখে কোচ অক্ষয়কে বাঁহাতে বল করার পরামর্শ দেন। কোচ তাকে প্রশ্ন করেন, বাঁহাতে বোলিং করতে পারবে কি না। এর পর থেকে বাঁহাতে বোলিংয়ের চেষ্টা শুরু করেন অক্ষয়। শুরুতে সমস্যা হলেও হাল ছাড়েননি তিনি। দুই বছরের মাথায় হয়ে ওঠেন পুরোদস্তর বাঁহাতি স্পিনার।

অক্ষয়ের বাবা একজন বাস চালক। বাবা যেমন জীবন সংগ্রামে হার মানেননি, অক্ষয়ও কোনো কিছু শুরু করে ছেড়ে দেননি। যে লড়াই এখনো চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

দুই হাতে বোলিং করা বিষয়ে ভারতীয় এই ক্রিকেটার বলেন, ‘এরআগে দুই হাতে বোলিং করলেও টেলিভিশনে এই প্রথম এলাম। গত বছর বিজয় হাজারে ট্রফিতে অফ স্পিন করে উইকেট পেয়েছিলাম। ইশান কিষান বাঁহাতি হওয়ায় আমার অধিনায়ক আজ আমাকে অফ স্পিন করতে বলেছেন।’

দুই হাতে বোলিং করার ব্যাপারটি দারুণ উপভোগ করেন অক্ষয়। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘দুই হাতে বোলিং করতে পারায় বেশ ভালো লাগে, মজাও পাই। যেখানেই আমি বোলিং করি, বিস্ময়মাখা মুখ দেখতে পাই। জুনিয়র ক্রিকেটে এক খেলোয়াড় মজা করে বলেছিল, এক ওভারে দুই হাতে বোলিং করে আমি প্রতারণা করছি। ওই ম্যাচে আমি দুই হাতে বোলিং করেই উইকেট পেয়েছিলাম।’

প্রিয় খেলা/শান্ত মাহমুদ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...