যেকোনো খাবারের সাথে খুব সহজেই মানিয়ে যায় মুরগির মাংস। ছবি: সংগৃহীত

জেনে নিন পারফেক্ট মুরগির মাংস রান্নার রহস্যটি

মুরগির মাংস কম রান্না হলে যেমন পেট খারাপ হয়, বেশি রান্না করলে তেমনি তার স্বাদ একেবারেই নষ্ট হয়ে যায়। কী করে বুঝবেন মাংস একেবারে পারফেক্ট রান্না হয়েছে?

কে এন দেয়া
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২২ আপডেট: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২২
প্রকাশিত: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২২ আপডেট: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২২


যেকোনো খাবারের সাথে খুব সহজেই মানিয়ে যায় মুরগির মাংস। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) যেকোনো খাবারের সাথে খুব সহজেই মানিয়ে যায় মুরগির মাংস। ভাত বা পোলাও খাবেন? মুরগির তরকারি হলেই চলবে। পরোটা খাবেন? ওই তরকারির ঝোল দিয়েই খেয়ে নেওয়া যায় দিব্যি। এর পাশাপাশি ফ্রায়েড রাইস, নুডলসে তো মুরগির মাংস দেওয়াই হয়।

এই মুরগির মাংস অবশ্য ঠিকভাবে রান্না না হলে যেমন বিশ্রী দুর্গন্ধ রয়ে যায়, তেমনি পেট খারাপ হওয়ার ঝুঁকি থাকে। স্যালমোনেলা ও ই. কোলাই জীবাণুর আক্রমণের পাশাপাশি পেটে ব্যথা, বমি ও জ্বর আসতে পারে।

মুরগির মাংস কম রান্না হলে যেমন পেট খারাপ হয়, বেশি রান্না করলে তেমনি তার স্বাদ একেবারেই নষ্ট হয়ে যায়। একটি টিপস হলো, মুরগির সবচেয়ে পুরু অংশের মাংস সেদ্ধ হওয়া মানে পুরোটাই সেদ্ধ হয়েছে। কিন্তু তারমানে আবার পাতলা অংশগুলো বেশি সেদ্ধ হয়ে রাবারের মতো শক্ত হয়ে যায়।

মুরগি রান্না হয়েছে কিনা, তা বোঝার সবচেয়ে সহজ উপায়টি হলো তাপমাত্রা পরীক্ষা করা। একটি কুকিং থার্মোমিটারের সাহায্যে মুরগির থাই, ব্রেস্ট বা অন্য কোনো পুরু মাংসের ভেতরের তাপমাত্রা নিন। তবে খেয়াল রাখুন যেন থার্মোমিটার হাড় স্পর্শ না করে। মাংসের তাপমাত্রা ১৬৫ ডিগ্রি ফারেনহাইট হয়ে থাকলে বুঝবেন তা সঠিকভাবে রান্না হয়েছে।

আরো কিছু উপসর্গ দেখে বোঝা যায় যে মুরগি সেদ্ধ হয়েছে, কিন্তু তাপমাত্রা পরীক্ষা করে নেওয়াটাই সবচেয়ে নিরাপদ। যদি মুরগির মাংস রান্নার পর খুব কমে যায়, তাহলে বুঝতে হবে তা ওভারকুকড হয়ে গেছে। এ ছাড়া মাংস গোলাপি রয়ে গেলে বুঝবেন তা পুরোপুরি সেদ্ধ হয়নি।

সূত্র: রিডার্স ডাইজেস্ট

প্রিয় লাইফ/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...