ঐতিহাসিক প্রেম-কাহিনির বাস্তব নায়ক-নায়িকা রণবীর সিং এবং দীপিকা পাড়ুকোন। ছবি: সংগৃহীত

উত্থান-পতনে ঠাসা যে ঐতিহাসিক প্রেমের বাস্তব কাহিনি

একের পর এক বিয়ের বাদ্য যখন বাজছে বলিউডের অলিগলিতে, তখন গত ১৪ নভেম্বর সাতপাকে বাঁধা পড়লেন রণবীর সিং ও দীপিকা পাড়ুকোন।

শামীমা সীমা
সহ সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৪০ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৪০
প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৪০ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৪০


ঐতিহাসিক প্রেম-কাহিনির বাস্তব নায়ক-নায়িকা রণবীর সিং এবং দীপিকা পাড়ুকোন। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ২০১৭ সালের ডিসেম্বর থেকে বলিউডে শুরু হয় বিয়ের বাদ্য বাজনা। আনুশকা শর্মা তার দীর্ঘদিনের প্রেমিক ভারতীয় ক্রিকেটার বিরাট কোহলির সঙ্গে ২০১৭ সালের ১১ ডিসেম্বর পারিবারিক আবহে গাঁটছড়া বাঁধেন ইতালির তাস্কানিতে। সেই থেকে একের পর এক বিয়ের বাদ্য বাজছে বলিউডের অলিগলিতে। এরপর গত মে মাসের ৮ তারিখে রাজকীয় আয়োজনে বিয়ে সারেন বলিউডের আরেক ডিভা সোনম কাপুর। একই সময়ে ১০ মে গোপনে অভিনেতা অঙ্গদ বেদির সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন আরেক বলিউড নায়িকা নেহা ধুপিয়া। সেই চর্চায় যখন বুঁদ ছিল বলিউড প্রেমিরা, তখন থেকেই কানাঘুষা শুরু- শিগগিরই বিয়ে করতে চলেছেন বলিউডের সবচেয়ে আকর্ষণীয় তারকা প্রেমিক জুটি রণবীর সিং এবং দীপিকা পাড়ুকোন

‘হাস্যোজ্জ্বল’ জুটি রণবীর সিং এবং দীপিকা পাড়ুকোন। ছবি: সংগৃহীত

গত ১৪ নভেম্বর ইতালির লেক কেমোতে আত্মীয় পরিজনের সান্নিধ্যে গাঁটছড়া বাঁধেন রণবীর-দীপিকা। সেই থেকে এখন পর্যন্ত কোনো সিনেমার জন্য চুক্তিবদ্ধ হননি দীপিকা পাড়ুকোন। স্বামীর সাফল্য চুটিয়ে উপভোগ করছেন নায়িকা। সেই সঙ্গে দাম্পত্যের সুখ তো রয়েছেই। বিষণ্ণতা যাকে একসময় গ্রাস করেছিল, সেই রাজকুমারী আজকে যেখানেই যাচ্ছেন, সঙ্গে জড়িয়ে রাখছেন স্বামীর হাত। স্বামীর সঙ্গে সময় কাটিয়েই আপাতত দিনযাপন করছেন তিনি। রণবীর নিজেও আগলে রাখছেন তার প্রাণপ্রিয় স্ত্রীকে। টুইটার কিংবা ইনস্টাগ্রামে ঢুকলে দুজনের প্রেমের রসায়নের দেখা মেলে। এদিকে সিনেমায় নতুন করে নাম না লেখালেও ইতোমধ্যে দীপিকাকে বেশ কিছু ফটোশুট করতে দেখা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, শিগগিরই সিনেমার শুটিং ফ্লোরে নামবেন দীপিকা। এর আগে জেনে নেওয়া যাক, দীপিকা ও রণবীরের প্রেমের কাহিনি।

বিয়ে নিয়ে শুরু থেকেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন দীপিকা। কারণ একসময় রণবীর কাপুরের প্রেমে পড়েছিলেন ‘পদ্মাবত’ নায়িকা। রণবীরের প্রেমে পাগল দীপিকা কাঁধের কাছে বড় বড় করে রণবীর কাপুরের আদ্যক্ষরে ট্যাটু করিয়েছিলেন। কাপুর বাড়ির বউ হওয়ার জন্য নিজের ক্যারিয়ার ছাড়তেও রাজি ছিলেন তিনি। তবে অনেক চেষ্টা করেও সেই প্রেম টিকিয়ে রাখতে পারেননি। বাধা হয়ে দাঁড়ায় ক্যাটরিনা কাইফের প্রতি রণবীরের তীব্র আকর্ষণ।

ইতালিতে বিয়ের আসরে রণবীর সিং এবং দীপিকা পাড়ুকোন। ছবি: সংগৃহীত

রণবীর কাপুরের বিরহে বিষণ্ণতা রোগে পর্যন্ত আক্রান্ত হন দীপিকা। একের পর এক সিনেমা ফ্লপ হতে থাকে তার। কিন্তু হেরে যাননি তিনি বিষণ্ণতার সঙ্গে নিজের যুদ্ধে। প্রাক্তন প্রেমিক রণবীর কাপুরের সঙ্গে জুটি বেঁধেই আবারও সিনেমায় অভিনয় শুরু করেন দীপিকা। ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’, ‘তামাশা’র মতো সিনেমায় তিনি অভিনয় করেন রণবীরের কাপুরের সঙ্গে। সেই ফলাফলে উত্তীর্ণ হন তিনি। হলিউড থেকেও অভিনয়ের ডাক পান দীপিকা। অ্যাকশন তারকা ভিন ডিজেলের সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করেন ‘ট্রিপল এক্স’ সিরিজের তৃতীয় সিনেমা ‘ট্রিপল এক্স: দ্য রিটার্ন অব জেন্ডার কেজ’ এ। সেই সিনেমা এতোই ব্যবসাসফল হয় যে, একই সিরিজের চতুর্থ সিনেমায় অভিনয়ের জন্যও দীপিকাকেই পছন্দ নির্মাতাদের।

তবে এর আগে দীপিকার কাছে সিনেমার প্রস্তাব নিয়ে যান জনপ্রিয় পরিচালক ও নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানসালি। ‘রামলীলা’ সিনেমায় দীপিকা অভিনয় করতে শুরু করেন রণবীরের সিংয়ের বিপরীতে। এই সিনেমার শুটিংয়ের সময় একে অপরের প্রেমে পড়েন রণবীর সিং ও দীপিকা পাড়ুকোন।

রণবীর সিং এবং দীপিকা পাড়ুকোন। ছবি: সংগৃহীত

খ্যাতি ও অভিনয় দক্ষতায় রণবীর সিংও কিন্তু পিছিয়ে নেই। তিনি যে জাত অভিনেতা, সেটি তিনি প্রমাণ করেছেন তার প্রথম সিনেমা ‘ব্যান্ড বাজা বারাত’ সিনেমার মাধ্যমে। এরপর একে একে অসংখ্য সুপারহিট সিনেমা উপহার দেন দর্শকদের। যদিও সহ অভিনেত্রীদের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে যাওয়া সেসময় ছিল তার বিশেষ বৈশিষ্ট্যের মধ্যে একটি। আনুশকা শর্মা, সোনাক্ষী সিনহার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ালেও সেটি দীর্ঘমেয়াদী হয়নি। এরপর রণবীরের সঙ্গে ‘রামলীলা’ সিনেমার সেটে দেখা হয় দীপিকার। প্রথম দেখাতেই দীপিকার প্রেমে পড়ে যান রণবীর সিং।

যদিও প্রথমে রণবীর দীপিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলেও প্রথমেই তাকে ‘হ্যাঁ’ বললেননি দীপিকা। কারণ তখনও তিনি রণবীর কাপুরকে কিছুতেই ভুলতে পারছিলেন না। তবে দীপিকার প্রেমে পাগল রণবীর সিং দীপিকার জন্য সারাজীবন অপেক্ষা করতে রাজি ছিলেন। পরবর্তীকালে দীপিকাও যে ‘বাজিরাও’য়ের প্রেমে ‘মাস্তানি’ হয়ে উঠেছিলেন। তাদের প্রেম সেলুলয়েডের ফিতায় বন্দী হয় ‘বাজিরাও মাস্তানি’ সিনেমার মাধ্যমে। এরপর ঐতিহাসিক ‘পদ্মাবত’ সিনেমার সূচনা। একই সিনেমায় আবারও একসঙ্গে অভিনয় করেন রণবীর সিং এবং দীপিকা।

রণবীর সিং এবং দীপিকা পাড়ুকোন। ছবি: সংগৃহীত

দারুণ ব্যবসাসফল সিনেমাটি মুক্তির পর অন্যান্য সিনেমায় রণবীর চুক্তিবদ্ধ হলেও দীপিকা রয়েছেন ঘরবন্দী। কারণ জানতে চাওয়ারও কোনো সুযোগ ছিল না গণমাধ্যমের কাছে। কারণ তখন থেকেই রণবীর-দীপিকার বিয়ের জল্পনা শুরু। দীপিকাকে তার মা ও বোনের সঙ্গে প্রায়ই দেখা যেতে লাগলো কেনাকাটা করা অবস্থায়। শুধু নিজের পরিবারের সঙ্গেই নয়, রণবীরের পরিবারের সঙ্গেও কেনাকাটায় ব্যস্ত হতে দেখা যায় দীপিকাকে। সেই থেকে ভক্তরা দিন গুণতে শুরু করেন, কবে তারা পাবেন চার হাত এক হওয়ার সুখবর। অবশেষে সেই দিনের দেখা পেলেন অগণিত ভক্ত ও অনুরাগীরা। গত ১৪ নভেম্বর সাতপাকে বাঁধা পড়লেন রণবীর সিং ও দীপিকা পাড়ুকোন।

১৪ নভেম্বর ও ১৫ নভেম্বর দুটি আলাদা নিয়মে বিয়ে সেরেছেন দীপিকা ও রণবীর। ইতালির লেক কোমোতে ১৪ নভেম্বের কোঙ্কনি মতে বিয়ে সেরেছেন তারা। এরপর ১৫ নভেম্বর সিন্ধি পাঞ্জাবি মতে বিয়ে করেন রণবীর-দীপিকা। যদিও জানা যাচ্ছে দীপিকার পরিবার শুধুমাত্র কোঙ্কনি রীতিতেই কন্যাদান করতে চেয়েছিলেন। পরে রণবীরের ইচ্ছাতেই সিন্ধি রীতিতে বিয়ের আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তার ইচ্ছাতে লেক কোমোর ভিলা দেল বলবিয়ানেলোতে অনেক টাকা খরচ করে অস্থায়ী গুরুদুয়ার তৈরি করে সিন্ধি রীতিতে বিয়ে হয় দীপিকা রণবীরের। এই বিয়েকে বলা হয় ‘আনন্দ করাজ’ অনুষ্ঠান।

রণবীর সিং এবং দীপিকা পাড়ুকোন। ছবি: সংগৃহীত

বিয়ের পর বেঙ্গালুরুতে প্রথম বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয় রণবীর-দীপিকার। বেঙ্গালুরুর পর দিল্লি ও মুম্বাইতে আয়োজিত হয় দীপিকা-রণবীরের ‘গালা ওয়েডিং রিসেপশন’। গত ১ ডিসেম্বর মুম্বাইয়ের গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে রাতের রিসেপশন পার্টি জমে ওঠে বলিউডের একাধিক তারকার মেলায়। বলিউড বাদশা শাহরুখ খান থেকে শুরু করে একাধিক তারকা এদিন রাতে আমন্ত্রিত হন। আমন্ত্রিতদের জন্য বিশেষ চমক হিসেবে আয়োজিত হয় ‘মিউজিক্যাল নাইট’। শুধু বিয়ের আয়োজনই নয়, দীপিকা ও রণবীরের বিয়ের পোশাক ও ফ্যাশনেও মুগ্ধ হয়ে যান ভক্তরা। তাদের বিয়ের ছবি ও ভিডিও প্রকাশ পেতেই সেসব নিয়েই আলোচনায় মেতে ওঠে বলিউডের সিনেমাপ্রেমীরা।

তবে বিয়ের আড়ম্বরের মধ্যেই ধর্মীয় জটিলতায় জড়িয়ে পড়েন দীপিকা-রণবীর। তাদের বিরুদ্ধে ধর্মীয় অবমাননার অভিযোগ আনেন খোদ ইতালির শিখ ধর্মীয় সংগঠন। শিখ ধর্মগুরুদের দাবি, আনন্দ করাজ অনুষ্ঠান গুরুদুয়ারায়ের বাইরে কোনোভাবেই আয়োজন করা সম্ভব নয়। তাই দীপিকা-রণবীরের বিয়ে ধর্মমতে সিদ্ধ হয়নি। কারণ শিখ রীতিতে গ্রন্থসাহেব গুরুদুয়ারায়ের বাইরে নিয়ে যাওয়ার নিয়ম নেই। তাই দীপিকা ও রণবীর এভাবে বিয়ে করে ধর্ম বিরুদ্ধ কাজ করেছেন বলে অভিযোগ ওঠে।

রণবীর সিং এবং দীপিকা পাড়ুকোন। ছবি: সংগৃহীত

তবে এসব নিয়ে মাথাব্যথা নেই নবদম্পতির। বিয়ের পর রণবীর সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের সম্পর্ক ছয় মাসও গড়ায়নি, তখন থেকেই জানতাম- দীপিকাই সেই মানুষ। আমি শুধু অপেক্ষা করছিলাম। দীপিকাকে বলেছিলাম যে মুহূর্তে তুমি রাজি হবে, আমরা বিয়ে করব। এই সম্পর্কটা সেভাবেই এত দিন ধরে আগলে রেখেছি।’ এদিকে রণবীর বিয়ে নিয়ে মুখ খুললেও একই বিষয়ে প্রশ্ন করলে উত্তরে এখন শুধু হাসছেন নববধূ দীপিকা।

তবে হানিমুন এখনই হচ্ছে না তাদের। রণবীর বিয়ের পর ‘সিম্বা’ সিনেমার মুক্তির কারণে প্রচারণায় ব্যস্ত হয়ে যান। সেই সিনেমা মুক্তির দুইমাসের মাথায় গত ১৪ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পায় ‘গাল্লি বয়’ সিনেমাটি। আলিয়া ভাটের বিপরীতে জোয়া আখতারের পরিচালনার সিনেমাটি ইতোমধ্যে সাড়া ফেলেছে বক্স অফিসে। বলা যায়, দীপিকা রণবীর সিংয়ের ‘লাকি চার্ম’। কারণ বিয়ের পর রণবীরের মুক্তি পাওয়া দুটি সিনেমাই যে সুপারহিট।

প্রিয় বিনোদন/আশরাফ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...