বীরেন্দর শেবাগ ও পুলওয়ামা হামলার নৃশংসতা। ছবি: সংগৃহীয়

শহিদ পরিবারের সন্তানদের পড়ালেখার দায়িত্ব নিতে তৈরি শেবাগ

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ভারতীয় বাহিনীর ওপর এটাই সবচেয়ে বড় হামলা।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৩৩ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৫৭
প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৩৩ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৫৭


বীরেন্দর শেবাগ ও পুলওয়ামা হামলার নৃশংসতা। ছবি: সংগৃহীয়

(প্রিয়.কম) গেল বৃহস্পতিবারের ঘটনা। ভারতশাসিত জম্মু-কাশ্মীরে বোমা হামলায় দেশটির সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) অন্তত ৪০ জন সদস্য নিহত হয়েছেন। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন আরও বেশ কয়েকজন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ভারতীয় বাহিনীর ওপর এটাই সবচেয়ে বড় হামলা।

রাজ্যের পুলওয়ামা জঙ্গি হামলায় গোটা ভারত রীতিমতো কাঁপছে। একইসঙ্গে ক্ষোভে ফুঁসছে দেশবাসী। এ ছাড়া হামলাকারীদের কীভাবে জবাব দেওয়া যায় সেটা নিয়েও চলছে আলোচনা।

এরই মধ্যে পুলওয়ামা জঙ্গি হামলাকে ‘কাপুরুষোচিত’ আখ্যা দিয়ে শহিদ জওয়ানদের পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন বীরেন্দ্রর শেবাগ। পুলওয়ামা জেলার আওয়ান্তিপুরা এলাকায় জঙ্গি হামলায় নিহত জওয়ানদের সন্তানদের পড়ালেখার খরচ বহনের প্রস্তাব দিয়েছেন সাবেক এই ভারতীয় ব্যাটসম্যান।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এক পোস্টের মাধ্যমে শেবাগ জানান, জঙ্গি হামলায় শহিদ জাওয়ানদের ছেলে-মেয়েদের ঝাজ্জরে নিজের নিজের আন্তর্জাতিক স্কুলে বিনামূল্যে পড়াতে চান তিনি। ১৬ ফেব্রুয়ারি, শনিবার ব্যক্তিগত টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে শহিদ জওয়ানদের ছবিসহ একটি তালিকাও পোস্ট করেন সাবেক এই ভারতীয় ক্রিকেটার।

পুলওয়ামা জঙ্গি হামলায় গোটা ভারত রীতিমতো কাঁপছে। ছবি: সংগৃহীত

ওই পোস্টে শেবাগ লেখেন, ‘আমরা যাই করি না কেন সেটা পর্যাপ্ত হবে না। কিন্তু পুলওয়ামায় বীর শহিদ জওয়ানদের সন্তানদের লেখাপড়ার দায়িত্বভার আমি নিতে চাই। ঝাজ্জরে আমার স্কুলে ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা বিনামূল্যে তাদের পড়াশোনা চালিয়ে গেলে আমি নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করব।’

পিছিয়ে নেই দেশটির তারকা বক্সার বিজেন্দর সিংও। হরিয়ানা পুলিশে কর্মরত অলিম্পিক পদকজয়ী এই বক্সার তার একমাসের বেতন শহিদ পরিবারের হাতে তুলে দিতে চান।

অবন্তীপুরায় সিআরপিএফ জওয়ানদের ওপর নৃশংস হামলায় দুঃখপ্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘আমি আমার একমাসের বেতন শহিদ জওয়ানদের পরিবারের হাতে তুলে দিতে চাই। আমি চাইবো, সবাই এভাবে শহিদ জওয়ানদের পরিবারের পাশে এসে দাঁড়াক। এটা আমাদের নৈতিক কর্তব্য। আসুন পাশে দাঁড়িয়ে তাদের আত্মত্যাগের জন্য গর্বিত হই।’

প্রিয় খেলা/আশরাফ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...