হাসিন জাহান ও হার্দিক পান্ডে। ছবি: সংগৃহীত

সাবেক স্বামীকে বিপদে ফেলে হার্দিকের পাশে হাসিন!

বিসিসিআইয়ের যৌক্তিকতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন শামির সাবেক স্ত্রী।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৫৬ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৫৬
প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৫৬ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৫৬


হাসিন জাহান ও হার্দিক পান্ডে। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) হার্দিক পান্ডে ও লোকেশ রাহুল নিজেদেরকে ভাগ্যবান ভাবতেই পারেন! নারী ও যৌনতার বিষয়ে অশালীন মন্তব্য করায় বাদ পড়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ থেকে। শুধু তাই নয়, ওয়ানডে সিরিজে না খেলিয়ে দেশে ফিরিয়ে আনা হয় এই দুই ক্রিকেটারকে। এরপর তাদেরকে পাঠানো হয় অনির্দিষ্টকালের জন্য নির্বাসনে। কিন্তু এই নির্বাসন স্থায়ী হয়েছিল মাত্র ১৩ দিন।

১৩ দিনের মাথায় শর্ত সাপেক্ষে হার্দিক ও রাহুলের উপর থেকে নির্বাসন তুলে নেয় বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) প্রশাসক কমিটি। নির্বাসন তুলে নিয়ে দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার জন্য হার্দিক পান্ডেকে পাঠানো হয়েছিল নিউজিল্যান্ডে। এ ছাড়া লোকেশ রাহুলকে অন্তর্ভুক্ত করা হয় ভারতের ‘এ’ দলে।

হার্দিক-রাহুলের বিতর্ক অনেকটা ধামাচামা পড়লেও সেটা নতুন করে আলোচনায় এনেছেন ভারতীয় পেসার মোহাম্মদ শামির সাবেক স্ত্রী হাসিন জাহান। শুধু তাই নয়, হার্দিকের আপত্তিকর মন্তব্য নিয়ে কথা বলতে গিয়ে সাবেক স্বামীকেও টেনে আনেন তিনি। এসময় বিসিসিআইয়ের যৌক্তিকতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন শামির সাবেক স্ত্রী।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘হার্দিকদের বিরুদ্ধে কোনো নারী অভিযোগ করেনি। তবু তাদের নির্বাসিত হতে হয়েছিল। তবে শামিকে কেন তা করা হলো না! একজন ক্রিকেটার যখন খারাপ কাজ করেছে, আমি সেটা তুলে ধরেছিলাম। কিন্তু অর্থ ও প্রতিপত্তির কাছে হার মানতে হয়েছিল। বদনাম করা হয়েছিল আমাকে। আমি আইনত বৈধ স্ত্রী হয়ে স্ত্রী নির্যাতন, অবৈধ সম্পর্কের কথা জানিয়েছি, সেটার প্রমাণও দিয়েছি। তা সত্ত্বেও শামিকে কিন্তু নিষিদ্ধ করা হয়নি!’

শামির বিরুদ্ধে স্ত্রী নির্যাতন, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছাড়াও যৌতুকের মতো অভিযোগ তুলেছিলেন হাসিন জাহান। কিন্তু এত অভিযোগের পরও ভারতীয় পেসারের বিরুদ্ধে বোর্ড উল্লেখযোগ্য কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় যত ক্ষোভ হাসিনের। তার ভাষ্য, ‘হার্দিক-রাহুলদের নির্বাচিত করে বোর্ড কী বোঝাতে চাইল? হার্দিকদের বিরুদ্ধে তো কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। নিজের মতামতই সোজাসুজি জানিয়েছিল। এমন কথা বলার জন্য ওদের নির্বাসনে কেন পাঠানো হলো? তাহলে শামির ক্ষেত্রে হলো না কেন?’

বিসিসিআইয়ের বিরুদ্ধেও অভিযোগ রয়েছে হাসিন জাহানের। তিনি বলেন, ‘দিল্লি গিয়ে বোর্ড প্রেসিডেন্টের কাছে শামির বিরুদ্ধে চলা তদন্তের রিপোর্ট চেয়েছিলাম। কিন্তু তিনি রিপোর্ট দিতে সরাসরি অস্বীকার করেছিলেন। ফিক্সিং হোক কিংবা শামির অবৈধ সম্পর্ক— তদন্তই তো ঠিক করে হলো না। সরাসরি শামিকে ছেড়ে দেওয়া হলো। বোর্ড শামির বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিলো না।’

প্রিয় খেলা/আশরাফ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...