সাংবাদিক দম্পতি সাগর সারোয়ার এবং মেহেরুন রুনিকে ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি হত্যা করা হয়। ছবি: সংগৃহীত

৬৩ বারেও জমা হয়নি সাগর-রুনি হত্যার চার্জশিট

সাত বছরে ৬৩ বার সময় পার হলেও আদালতে জমা দেওয়া হয়নি সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলার চার্জশিট।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:১৭ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:১৭
প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:১৭ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:১৭


সাংবাদিক দম্পতি সাগর সারোয়ার এবং মেহেরুন রুনিকে ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি হত্যা করা হয়। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) সাত বছরে ৬৩ বার সময় পার হলেও আদালতে জমা দেওয়া হয়নি সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলার চার্জশিট।  

মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সারোয়ার ও এটিএন বাংলার সিনিয়র রিপোর্টার মেহেরুন রুনি হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য একের পর এক তারিখ পড়ে কিন্তু চার্জশিট জমা হয় না। তদন্ত কর্মকর্তা শুধু বারবার সময় নিচ্ছেন।

১৭ ফেব্রুয়ারি, রবিবার মামলাটির চার্জশিট দাখিলের জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাবের সহকারী পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন আহমেদ কোনো প্রতিবেদন দাখিল না করায় ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাস প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নতুন করে ৩১ মার্চ দিন ধার্য করেছেন। এ নিয়ে গত সাত বছরে ৬৩ বার প্রতিবেদন জমা দেওয়ার তারিখ পেছানো হলো এ হত্যা মামলার।

২০১২ সালে ঢাকায় পশ্চিম রাজাবাজার এলাকায় একটি ফ্ল্যাটে সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি নির্মমভাবে হত্যার শিকার হন। ঘটনার সময় ওই বাসায় থাকা তাদের একমাত্র ছেলে মাহি সারোয়ার মেঘ বেঁচে যায়।

ঘটনার পর রুনির ভাই বাদী হয়ে মামলা করেন। এরপর সাত বছর পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত মামলার চার্জশিট দাখিল করতে পারেননি তদন্ত কর্মকর্তা।

এ হত্যা মামলায় রুনির বন্ধু তানভীর রহমানসহ আসামি মোট আট জন। মামলার অপর আসামিরা হলেন বাড়ির নিরাপত্তারক্ষী এনাম আহমেদ ওরফে হুমায়ুন কবির, রফিকুল ইসলাম, বকুল মিয়া, মিন্টু ওরফে বারগিরা মিন্টু ওরফে মাসুম মিন্টু, কামরুল হাসান অরুণ, পলাশ রুদ্র পাল ও আবু সাঈদ।

আসামিদের প্রত্যেককে কয়েকবার করে রিমান্ডে নেওয়ার পরেও তাদের কেউই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেননি আদালতে।

প্রিয় সংবাদ/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...