সমালোচকদের কড়া জবাব দিলেন সানিয়া মির্জার। ফাইল ছবি

দেশপ্রেম নিয়ে প্রশ্ন, সমালোচকদের কড়া জবাব সানিয়া মির্জার

‘ওরাই হলেন আসল নায়ক, যারা দেশকে রক্ষা করেন’, জম্মু-কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় নিহত সেনাদের নিয়ে বলেন সানিয়া মির্জা।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:৫৪ আপডেট: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:০১
প্রকাশিত: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:৫৪ আপডেট: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:০১


সমালোচকদের কড়া জবাব দিলেন সানিয়া মির্জার। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) জম্ম-কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় ৪৪ জন সেনা নিহতের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রতিবাদ না জানানোর কারণে সমালোচনার মুখে পড়েন ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। তার দেশপ্রেম নিয়ে অনেকে প্রশ্নও তুলেন। এ নিয়ে সমালোচকদের কড়া জবাবও দিয়েছেন তিনি।

সানিয়া মির্জা বলেছেন, তিনি দেশকে ভালোবাসেন। দেশের জন্যই ঘাম ঝরান। অযথা ঘৃণা না ছড়িয়ে শান্তির জন্য সমালোচকদের প্রার্থনার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে এই টেনিস তারকা প্রশ্ন রাখেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব না হলে কি তারকাদের দেশপ্রেম প্রমাণ করা যায় না?

জম্মু-কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় নিহত সেনাদের নিয়ে তিনি বলেন, ‘ওরাই হলেন আসল নায়ক, যারা দেশকে রক্ষা করেন।’

সমালোকদের জবাব দিতে গিয়ে নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে এমন প্রতিক্রিয়াই জানান এই টেনিস তারকা।

বৃহস্পতিবার জম্মু-কাশ্মীরে জঙ্গি হামলা হয়। এই দিনই নতুন পোশাক পরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে ছবি দেন পাকিস্তানের ক্রিকেট তারকা শোয়েব মালিকের স্ত্রী সানিয়া মির্জা। জঙ্গি হামলায় ৪৪ সেনা নিহতের ঘটনায় প্রতিবাদ না জানানোর কারণে সমালোচিত হতে হয় তাকে। তীব্র সমালোচনার মুখে টুইট করে কড়া জবাব দিলেন তিনি।

টুইটে সানিয়া মির্জা লিখেন, ‘এই পোস্টটা আমি তাদের জন্য করছি, যারা মনে করেন—তারকাদের উচিত টুইট, ইনস্টাগ্রাম, সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ধরনের ঘটনার সমালোচনা করে নিজেদের দেশপ্রেম প্রমাণ করা। কেন? আমরা তারকা বলে? আমি যে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে, তা বোঝানোর জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় গিয়ে গলা ফাটানোর কোনো প্রয়োজন আমার নেই। অবশ্যই আমরা সন্ত্রাসবাদ এবং সেই সন্ত্রাসবাদ যারা ছড়ায়, তাদের বিরুদ্ধে। যেকোনো সুস্থ মস্তিষ্কের লোকই এ কথা বলবে।’

‘আমি দেশের হয়ে খেলি, দেশের হয়ে ঘাম ঝরাই। এভাবেই দেশের সেবা করি। সিআরপিএফ জওয়ান এবং তাদের পরিবারের পাশে আছি আমি। জানি, ওরাই হলেন আসল নায়ক, যারা দেশকে রক্ষা করেন। ভারতের জন্য ১৪ ফেব্রুয়ারি একটি কালো দিন হয়ে থাকবে। এ রকম দিন যেন আর না আসে। এই দিনটি ভোলা সম্ভব নয়, ভুলতে দেওয়া যাবে না। কিন্তু আমি শান্তির জন্যই প্রার্থনা করব এবং আশা করব, আরও ঘৃণা না ছড়িয়ে আপনারাও তাই করবেন।’

প্রিয় খেলা/রিমন

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...