পালানোর চেষ্টায় ছয় তলা থেকে এক ‘জঙ্গি’র লাফ। ছবি সংগৃহীত

ছয় তলা ভবন থেকে পালানোর চেষ্টায় এক ‘জঙ্গি’র লাফ

মিল্লাত দুই কনস্টেবলকে ঘুষি মেরে এক দৌড়ে ছয় তলার মাঝখানের করিডরের খোলা জানালা দিয়ে লাফ দেয়।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৪০ আপডেট: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৪০
প্রকাশিত: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৪০ আপডেট: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৪০


পালানোর চেষ্টায় ছয় তলা থেকে এক ‘জঙ্গি’র লাফ। ছবি সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) রাজধানীর মিন্টো রোডে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) ভবন থেকে লাফিয়ে পালানোর চেষ্টা করল শেখ গোলাম হোসেন ওরফে মিলাদ নামে এক জঙ্গি।

১৮ ফেব্রুয়ারি, সোমবার বিকেলে সিটিটিসি’র ছয় তলা ভবন থেকে লাফ দেন তিনি। এসময় বৈদ্যুতিক তারের ওপর বাড়ি খেয়ে নিচে পড়ার সময় তার পায়ের কিছু অংশ পুড়ে যায়। উদ্ধার করে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে সে আশঙ্কামুক্ত। পুলিশের দাবি সে নব্য জেএমবির সদস্য।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ডেমরা এলাকা থেকে মিলাদ নামে জঙ্গিকে গ্রেফতার করে সিটিটিসির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম বিভাগ। তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাস বিরোধী আইনে করা মামলায় রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছিল। সোমবার বিকেল পৌনে ৫টার দিকে সে বাথরুমে যেতে চায়। এ সময় দুই জন কনস্টেবল তাকে বাথরুমে নিয়ে যায়। বাথরুম থেকে বের হয়ে মিল্লাত দুই কনস্টেবলকে ঘুষি মেরে এক দৌড়ে ছয় তলার মাঝখানের করিডরের খোলা জানালা দিয়ে লাফ দেয়। তবে ফুটপাতের পাশের ইলেকট্রিক তারে বাড়ি খেয়ে সে সড়কে দাঁড়িয়ে থাকা একটি মাইক্রোবাসের ওপরে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম-সিটিটিসি ইউনিটের প্রধান ও ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘ওই আসামি রিমান্ডে ছিল। মঙ্গলবার তাকে আদালতে সোপর্দ করার কথা ছিল। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে দৌড়ে গিয়ে ছয় তলা থেকে লাফ দেয়।’

‘তার বিরুদ্ধে পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় পালানোর চেষ্টার জন্য পুলিশ আইনের ২২৪ ধারায় আরেকটি মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।’

প্রিয় সংবাদ/আশরাফ

 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...