ভারতীয় সমর্থকদের কোনো অনুরোধই কানে নেয়নি ইএসপিএন ক্রিকইনফো। ছবি: সংগৃহীত

ক্রিকইনফোর সাড়া না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ ভারতীয়রা

এত অনুরোধ-সমালোচনার কোনো কিছুই কানে তুলছে না ইএসপিএন ক্রিকইনফো।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২৪ আপডেট: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২৪
প্রকাশিত: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২৪ আপডেট: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২৪


ভারতীয় সমর্থকদের কোনো অনুরোধই কানে নেয়নি ইএসপিএন ক্রিকইনফো। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) পুলওয়ামা জঙ্গি হামলায় গোটা ভারত রীতিমতো কাঁপছে। একইসঙ্গে ক্ষোভে ফুঁসছে দেশবাসী। কেননা বর্বর এই হামলায় দায় স্বীকার করে নিয়েছে সন্ত্রাসী সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদ; আর সংগঠনটির পাকিস্তানের। যার জেরে দেশটির সাথে সম্পর্কিত সবকিছুকে বয়কটের ঘোষণা দিয়েছে ভারতীয়রা।

বয়কটের প্রভাব পড়েছে চলমান পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) উপরও। এর মাঝেই ভারতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) চতুর্থ আসরের সম্প্রচার।

শুধু তাই নয়, ভারতীয়দের তোপের মুখে বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় ক্রিকেট বিষয়ক সংবাদমাধ্যম ক্রিকবাজ-ক্রিকট্র্যাকার পিএসএল সংক্রান্ত সকল সংবাদ ও তথ্য প্রচার বন্ধ ঘোষণা করেছে। তবে এত অনুরোধ-সমালোচনার পরও বিখ্যাত ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো পিএসএলের খবর প্রচার থেকে সরে আসেনি।

ভারতীয় সমর্থকরা ইএসপিএন ক্রিকইনফোর পেইজে নিয়মিত অনুরোধ করছে তাদের সৈনিকদের মৃত্যুর উপর সম্মান জানিয়ে ও এর প্রতিবাদে যেন পিএসএল বয়কট করে। কিন্তু কোনো অনুরোধ বা সমালোচনাই কাজে আসছে না।

ভারতীয় সমর্থকদের দাবি, ক্রিকট্র্যাকার-ক্রিকবাজ পিএসএলের খবর প্রচার বন্ধ করেছে। কিন্তু এত অনুরোধের পরও কেন ক্রিকইনফো পিএসএলের খবর প্রচার করা বন্ধ করছে না? সমর্থকরা এও দাবি করছেন, উল্টো আরও বেশি করে পিএসএল ও পাকিস্তান সম্পর্কিত খবর প্রচার করছে ইএসপিএন ক্রিকইনফো।

যার জেরে ভারতীয়রা রীতিমতো হুমকি দিচ্ছে ক্রিকইনফোর পেইজ আনফলো, আনলাইকের ও ক্রিকইনফোর অ্যাপ আনইন্সটলের ও এক রেটিং দিয়ে নামিয়ে আনার। সমর্থকদের একটাই কথা, ভারতীয় ওয়েবসাইট না হলেও ইএসপিএন ক্রিক ইনফোকে তাদের দাবি মানতে হবেই যে করেই হোক ।

ভারতীয় সমর্থকদের টুইটের একাংশ। 

ভারতভিত্তিক হওয়ায় ক্রিকবাজ ও ক্রিকট্র্যাকারের পক্ষে পিএসএলের খবর প্রচার বন্ধ করা সম্ভব হলেও ইএসপিএন ক্রিকইনফোর জন্য তা কঠিন। কেননা ক্রিকইনফোর সৃষ্টি হয় ১৯৯৩ সালে, ইংল্যান্ডে। পরবর্তী সময়ে উইজডেনের হাত হয়ে ওয়েবসাইটটি আসে ইএসপিএনের কাছে।

ইএসপিএনের কাছেই রয়েছে বর্তমানে ক্রিকইনফোর মালিকানা। ইএসপিএন একটি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ক্রীড়া বিষয়ক সাইট যা সকল খেলার খবর প্রচার করে থাকে। যেহেতু ক্রিকইনফোর মালিকানা যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক তাই তাদের জন্য কোনো এক বিশেষ দেশের সেনা নিহত হওয়ায় অন্য কোনো দেশের খেলার খবর বন্ধ করা নীতি নীতিবিরুদ্ধ।

প্রিয় খেলা/আশরাফ