মার্সেলো ব্রোজোভিকের জন্যই ভাঙছে ওয়ান্ডা নারা ও মাউরো ইকার্দির বিয়ে! ছবি: সংগৃহীত

আবারও পরকীয়ায় জড়িয়েছেন এই আর্জেন্টাইন ফুটবলারের স্ত্রী!

সতীর্থের স্ত্রী ভাগিয়ে নেওয়ার এমন গল্প নিঃসন্দেহেই মুখরোচক খবরে পরিণত হয়েছে।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:২০ আপডেট: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:২০
প্রকাশিত: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:২০ আপডেট: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:২০


মার্সেলো ব্রোজোভিকের জন্যই ভাঙছে ওয়ান্ডা নারা ও মাউরো ইকার্দির বিয়ে! ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) আর্জেন্টাইন তারকা ম্যাক্সি লোপেজের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন ওয়ান্ডা নারা। ভালোই চলছিল তাদের সংসার। তাদের ঘরে রয়েছে তিনটি পুত্র সন্তান। তবে স্বামীর সতীর্থ মাউরো ইকার্দির সঙ্গে দেখা হওয়ার পরই বদলে যায় সবকিছু। ইকার্দির প্রেমে পড়েন লোপেজপত্নী।

ধীরে ধীরে আরও গভীর হতে শুরু করে তাদের প্রণয়। একপর্যায়ে স্বামী লোপেজের সঙ্গে সম্পর্ক চুকিয়ে ইকার্দির সঙ্গে সংসার শুরু করেন ওয়ান্ডা। সতীর্থের স্ত্রী ভাগিয়ে নেওয়ার এমন গল্প নিঃসন্দেহেই মুখরোচক খবরে পরিণত হয়। ওই সময় লোপেজের ভাষ্য ছিল, তার পিঠে বিশ্বাসঘাতকতার ছুরি মেরে ইকার্দি-ওয়ান্ডা পরকীয়ায় জড়িয়েছিলেন!

একে একে পেরিয়ে গেছে চারটি বছর। ইতোমধ্যে ইকার্দি-ওয়ান্ডার সংসারে আলো ছড়িয়েছে দুই কন্যা সন্তান। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাদের দুজনের ছবি দেখলে যে কেউই বলবে, সুখে আছেন তারা। কিন্তু হঠাৎ করেই ভিন্ন এক খবর আলোড়ন তুলেছে ফুটবল বিশ্বে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবর, আবারও পরকীয়া জড়িয়েছেন ওয়ান্ডা।

ইন্টার মিলানে স্বামী ইকার্দির সতীর্থ মার্সেলো ব্রোজোভিকের সঙ্গে পরকীয়া জড়িয়েছেন ওয়ান্ডা—এমনই বিস্ফোরক খবর প্রকাশ করে কিং করোনা ম্যাগাজিন। ফুটবলবিষয়ক এই ম্যাগাজিনের বরাত দিয়ে এরপর আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম লুফে নেয় খবরটি। এই খবরে সাড়া পড়ে যায় ফুটবল বিশ্বে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুরু হয় আলোচনা।

যদিও এ বিষয়ে মুখ খোলেননি ইকার্দিপত্নী। অবশ্য ব্রোজোভিক এমন গুঞ্জন রীতিমত হাস্যকর ও গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। ব্রোজোভিকের মতে, এমন ভুয়া খবর তার সম্মানহানি করেছে। যার জেরে আইনজীবীর মাধ্যমে ম্যাগাজিনটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিচ্ছেন ২৬ বছর বয়সী ক্রোয়েশিয়ার এই তারকা মিডফিল্ডার।

এ নিয়ে ব্রোজোভিকের ভাষ্য, ‘মিসেস ওয়ান্ডা নারার সঙ্গে এমন কোনো সম্পর্কই নেই আমার।’

মাউরো ইকার্দি-মার্সেলো ব্রোজোভিক। ছবি: সংগৃহীত

এর আগে ইকার্দির সঙ্গে ওয়ান্ডার বিবাহ বিচ্ছেদের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। এমন গুঞ্জন ছড়ানোর মূলে অবশ্য রয়েছেন ওয়ান্ডাই। সম্প্রতি নিজেদের ভালোবাসার একটি ছবি পুড়িয়ে ফেলেছেন তিনি। হার্ট শেপের একটি ছবি পুড়িয়ে, সেটার ভিডিও করে আবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইন্সটাগ্রামে পোস্টও করেছেন ইকার্দিপত্নী।

যার জেরে ইকার্দি-ওয়ান্ডার সংসার ভাঙার গুঞ্জন দ্রুতই ডালপালা মেলে। রহস্যজনক ব্যাপার হচ্ছে, ওই ভিডিও পোস্ট করার ২৪ ঘণ্টা আগেও তাদেরকে একসঙ্গে দেখা গেছে। এ ছাড়া ইন্টার মিলানে ইকার্দির অধিনায়কত্ব হারানোর বিষয় নিয়ে একটি টিভি শোতে বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়তেও দেখা যায় ইকার্দি-পত্নীকে।

পরিবারের সঙ্গে মাউরো ইকার্দি-ওয়ান্ডা নারা। ছবি: সংগৃহীত

এমনিতে অবশ্য স্ত্রী ওয়ান্ডাকে নিয়ে বিপাকেই রয়েছেন ইকার্দি। আর্জেন্টাইন, ব্রিটিশ ও স্প্যানিশ গণমাধ্যম বলছে, সতীর্থের স্ত্রী ভাগিয়ে নিয়ে আসার পরিণতি হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন ইকার্দি, হারাতে বসেছেন সবকিছুই! 

ক্লাব ফুটবলে তাকে নিয়ে টানাটানি হলেও আর্জেন্টিনার জার্সিতে খেলার সুযোগ পেয়েছেন মাত্র ৮ ম্যাচে! বর্তমান ক্লাব ইন্টার মিলানের সঙ্গেও ইকার্দির সম্পর্ক খারাপ হয়ে গেছে শুধু তার স্ত্রী জন্যই। হারিয়েছেন অধিনায়কত্ব। প্রকাশ্যে ক্লাব কর্তাদের বিরুদ্ধে ওয়ান্ডার ব্যাপক সমালোচনাই নাকি এর কারণ।

এখানেই শেষ নয়। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে খবর, ইকার্দিকে দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করছে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। এমন একটা ক্লাবে খেলার স্বপ্ন বিশ্বের সব ফুটবলার দেখে থাকেন। কিন্তু এখানেও নাকি বাগড়া দিচ্ছেন স্ত্রী ওয়ান্ডা! স্ত্রীর ভূমিকা পালনের পাশাপাশি ইকার্দির এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ওয়ান্ডা।

আর তাতেই বেঁধেছে গোল! ওয়ান্ডার মতো নাছোড়বান্দা মানসিকতার এজেন্টের কারণেই নাকি বেশ চটে গেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ইন্টার মিলানের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন না করানোর ফলে আশায় বুক বেঁধেছিল রিয়াল। কিন্তু ওয়ান্ডার সম্পর্কে জানার পর দমে গেছে লা লিগার জায়ান্টরা।

ফুটবল বোদ্ধাদের মত, স্ত্রীর কারণে সবকিছুই হারাতে বসেছেন ইকার্দি। যদি ওয়ান্ডার জন্য ইকার্দিকে দলে না ভেড়ায় রিয়াল, সেক্ষেত্রে বিপাকেই পড়বেন আর্জেন্টাইন এই ফুটবলার। কেননা ইন্টার মিলানের সঙ্গেও চুক্তি নবায়ন করেননি ইকার্দি! সবমিলিয়ে বেশ বড় ঝামেলাতেই রয়েছেন এই তারকা ফুটবলার।

প্রিয় খেলা/রিমন