টেলিফোন শিল্প সংস্থার কারখানা পরিদর্শন করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। ছবি: সংগৃহীত

টেশিসকে শক্তিশালী প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়বই: মোস্তাফা জব্বার

মন্ত্রী বলেন, ‘পাইরেসি সফটওয়্যার ব্যবহারের সংস্কৃতি যেন দোয়েলকে স্পর্শ করতে না পারে, এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সতর্ক থাকতে হবে।’

রাকিবুল হাসান
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬ মার্চ ২০১৯, ১৮:৩৩ আপডেট: ০৬ মার্চ ২০১৯, ১৮:৩৩
প্রকাশিত: ০৬ মার্চ ২০১৯, ১৮:৩৩ আপডেট: ০৬ মার্চ ২০১৯, ১৮:৩৩


টেলিফোন শিল্প সংস্থার কারখানা পরিদর্শন করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) টেলিফোন শিল্প সংস্থাকে (টেশিস) যেকোনো মূল্যে শক্তিশালী একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার

৬ মার্চ, বুধবার টঙ্গীতে টেশিস স্থাপনা পরিদর্শনকালে এ অঙ্গীকার করেন মন্ত্রী।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘টেশিসকে যেকোনো মূল্যে শক্তিশালী একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এটিকে কোনো অবস্থাতেই ব্যর্থ প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেখতে চাই না। টেশিসকে শক্তিশালী হিসেবে গড়ে তোলার এই চ্যালেঞ্জ ব্যর্থ হওয়ার কোনো রাস্তা নেই। আমরা জনগণের জন্য কাজ করতে এসেছি। তাদের স্বার্থ রক্ষা করতে হবে সবার আগে। আমাকে তা পারতেই হবে।’

তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ‘টেশিসকে সবল করতে কোনো ব্যর্থতা মেনে নেয়া হবে না।’ এ বিষয়ে তিনি একটি পূর্ণাঙ্গ পরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

একই সঙ্গে টেশিসকে শক্তিশালী করতে বিভিন্ন পরামর্শ তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, ‘রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন এই প্রতিষ্ঠানটিকে স্বাধীন শিল্প ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করতে হবে। কারো কাছে জিম্মি হয়ে লক্ষ্য অর্জন সম্ভব নয়। এত বিশাল অবকাঠামো থাকা সত্ত্বেও টেশিস পিছিয়ে থাকতে পারে না। অন্যরা পারলে টেশিস কেন পারবে না? সঠিক কর্মপরিকল্পনা নিয়ে এগুতে পারলে টেশিসকে শক্তিশালী করা কঠিন হবে না—শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা সময়ের ব্যাপার মাত্র।’

বাজার ও উৎপাদন বিষয়ে টেশিসের কোনো গবেষণা ও কর্মপরিকল্পনা না থাকায় মন্ত্রী বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, ‘মার্কেট সার্ভে না করে কোনো ডিজিটাল পণ্য উৎপাদন ও বাজারজাতে সুফল আসে না। টেশিস একটি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান, এখানকার মানুষকে মেধা দিয়ে কাজ করতে হবে, প্রযুক্তিগত বিষয়ে আরও যোগ্যতা ও দক্ষতা অর্জন করতে হবে। টেশিসের বিদ্যমান বিভিন্ন প্লান্টে নতুন প্রযুক্তির সমন্বয় করে কাজ করতে হবে।’

মন্ত্রী তুলনামূলক সাশ্রয়ী মূল্যে গুণগত মানের দোয়েল ল্যাপটপ তৈরি ও তা ক্রয়ে ক্রেতাদের আগ্রহী করে তোলার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, ‘পাইরেসি সফটওয়্যার ব্যবহারের সংস্কৃতি যেন দোয়েলকে স্পর্শ করতে না পারে, এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সতর্ক থাকতে হবে। চাহিদাভিত্তিক গুণগতমানের ডিভাইস উৎপাদন ও বাজারজাত করার মাধ্যমে জনগণের হাতে পণ্য পৌঁছে দিতে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।’

মোস্তাফা জব্বার ডিজিটাল প্রযুক্তি উৎপাদন ও রপ্তানি খাতে বাংলাদেশের সফলতা বর্ণনা করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ অগ্রগতিতে সারা বিশ্বের বিস্ময়। মোবাইল সেট এখন মেড ইন বাংলাদেশ ব্র্যান্ডের দখলে। গত কয়েক মাসে দেশে ছয়টি মোবাইল সেট উৎপাদন কারখানা চালু হয়েছে। এই মাসেই আরও একটি কারখানা উদ্বোধন হবে।’

উল্লেখ্য, ২০১০ সালে টেশিস কোম্পানিতে রূপান্তরিত হওয়ার পর বর্তমানে দোয়েল ল্যাপটপ ছাড়াও ডিজিটাল টেলিফোন সেট, পিএবিএক্স, বৈদ্যুতিক ডিজিটাল মিটার, মোবাইল ব্যাটারি এবং চার্জার উৎপাদন ও বাজারজাত করছে।

এ সময় ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন।

প্রিয় প্রযুক্তি/আজাদ চৌধুরী