বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড টেস্ট ম্যাচের দৃশ্য। ফাইল ছবি

ক্রাইস্টচার্চের টেস্ট বাতিল ঘোষণা

ঘটনার প্রায় ঘণ্টাদুয়েক পর দুই দেশের বোর্ডের আলোচনার পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০১৯, ১১:২৭ আপডেট: ১৫ মার্চ ২০১৯, ১১:২৭
প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০১৯, ১১:২৭ আপডেট: ১৫ মার্চ ২০১৯, ১১:২৭


বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড টেস্ট ম্যাচের দৃশ্য। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) ১৬ মার্চ, শনিবার ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভাল মাঠে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টে মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল নিউজিল্যান্ড ও বাংলাদেশের। কিন্তু ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলার ঘটনায় বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার তৃতীয় ও শেষ টেস্টটি বাতিল করা হয়েছে।

১৫ মার্চ, শুক্রবার অনুশীলন শেষে জুম্মার নামাজ পড়তে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ-মুশফিকুর রহিম-তামিম ইকবাল-মুস্তাফিজুর রহমান-মেহেদী হাসান মিরাজ-তাইজুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার যান নিকটবর্তী মসজিদ আল নূরে। মসজিদে প্রবেশ করার ঠিক আগমুহূর্তে অজ্ঞাত এক নারী বাংলাদেশ দলকে সাবধান করেন যে, ভেতরে একজন পিস্তল হাতে ঢুকেছেন।

অজ্ঞাত নারীর ওই সাবধান বাণী শুনে কাছেই দাঁড়িয়ে থাকা টিম বাসে ওঠে পড়েন বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা এবং বাসের মেঝেতে শুয়ে পড়েন। এ সময় গোলাগুলির আওয়াজ শুনতে পান তারা। এরপর ভয়ার্ত ক্রিকেটাররা দ্রুতই হ্যাগলি পার্কের রাস্তা ধরে স্টেডিয়ামে ফেরেন। আপাতত তারা নিরাপদেই রয়েছেন।

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভাল স্টেডিয়ামের ড্রেসিংরুমে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা। ছবি: সংগৃহীত

ঘটনার প্রায় ঘণ্টাদুয়েক পর দুই দেশের বোর্ডের আলোচনার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তিন ম্যাচের সিরিজ অসমাপ্তই থেকে যাবে। শনিবার ক্রাইস্টচার্চে খেলবে না দুই দল।

এ নিয়ে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইটের ভাষ্য, ‘নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা। আমরা শনিবারের ম্যাচটি বাতিল করেছি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে আলোচনা করেই এমন সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছি আমরা। কারণ এমতাবস্থায় ক্রিকেট খেলার কোনো পরিবেশ নেই।’

ম্যাচ বাতিল হওয়ায় বাংলাদেশ দলের সদস্যরা কবে দেশে ফিরবেন সে ব্যাপারে খুব শিগগিরই সিদ্ধান্ত নেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ও নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড।

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...