ছবিটি প্রতীকী, ইন্টারনেট হতে সংগৃহীত।

বিয়ের সিদ্ধান্তের আগে এই ৫টি ব্যাপারে কথা বলেছিলেন তো?

বিয়ের পর দুটি মানুষের জীবনের সবকিছুই বদলে যায়। অনেক ক্ষেত্রেই এই পরিবর্তন এত অপ্রত্যাশিত হয় যে মানুষ দুটি সেই ভার বহন করতে পারে না। ফলে দেখা দেয় অশান্তি ও কলহ।

রুমানা বৈশাখী
বিভাগীয় প্রধান (প্রিয় লাইফ)
প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০১৯, ২২:৩১ আপডেট: ১৫ মার্চ ২০১৯, ২২:৩১
প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০১৯, ২২:৩১ আপডেট: ১৫ মার্চ ২০১৯, ২২:৩১


ছবিটি প্রতীকী, ইন্টারনেট হতে সংগৃহীত।

(প্রিয়.কম) বিয়ে কেবল দুটি মানুষের মিলন নয়, বিয়ে দুটি পরিবারের, দুটি মানুষের সামাজিক অবস্থানের মিলন। বিয়ের পর দুটি মানুষের জীবনের সবকিছুই বদলে যায়। অনেক ক্ষেত্রেই এই পরিবর্তন এত অপ্রত্যাশিত হয় যে মানুষ দুটি সেই ভার বহন করতে পারে না। ফলে দেখা দেয় অশান্তি ও কলহ। আর এই পরিস্থিতি না চাইলে কিছু ব্যাপার নিয়ে বিয়ের পূর্বেই কথাবার্তা সেরে নেয়া উত্তম। সেই ব্যাপারগুলো বিয়ের আগে ঠিক করা থাকলে পরবর্তীতে অনেক সমস্যাই এড়ানো সম্ভব।

উপার্জন ও সঞ্চয়

অর্থনৈতিক ব্যাপার নিয়ে অবশ্যই বিয়ের আগে স্পষ্ট করে কথা বলে নিন। পরস্পরের উপার্জন, সঞ্চয় ও খরচ বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নিন। এ ক্ষেত্রে কোনো মিথ্যার আশ্রয় নেবেন না। সেটা হবে নিজের পায়ে নিজের কুড়াল মারার মতোই একটি ব্যাপার।

মা-বাবা কাদের সঙ্গে থাকবে?

পুরুষের মা-বাবা যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনই জরুরি নারীদের পিতা-মাতাও। তাই বিয়ের পুর্বেই দুজনে খোলামেলা কথা বলে নিন এই ব্যাপারে। মা-বাবা কার সঙ্গে থাকবে বা কে তাদের দেখভাব করবে, এইসব বিষয়ে স্পষ্ট সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিন দুজনেই। যে মানুষ পিতা-মাতার দায় বহন করতে চায় না, তার সঙ্গে সম্পর্ক না করাই উত্তম।

জীবন পার করতে চান কোথায় ও কীভাবে

মানুষ মাত্রই ভিন্ন ভিন্ন স্বপ্ন, ভিন্ন সিদ্ধান্ত। আপনি যেভাবে বাকি জীবন কাটাতে চান, সেটি নিয়ে হবু বর বা বধুর সঙ্গে কথা বল খুবই জরুরি। কেননা, আপনার স্বপ্নের সঙ্গে তার স্বপ্ন নাও মিলতে পারে। আর স্বপ্নভঙ্গ একজন মানুষকে পুরোপুরি নিঃশেষ করে দেয়। বিয়ের পূর্বেই স্বপ্ন মিলিয়ে দেখা জরুরি।

পরস্পরের কর্মজীবন

একেকজনের পেশা একেক রকম, কাজের ধরনও তাই। কারও হয়তো ছুটির দিনগুলিতেও কাজ করতে হয়, কাউকে আবার থাকতে হয় বাড়ির বাইরে। কেউ হয়তো কাজের খাতিরে রাত করে বাসায় ফেরেন, কাউকে হয়তো বিপরীত লিঙ্গের সঙ্গেই মেলামেশা করতে হয় সারাক্ষণ। এই ব্যাপারগুলো নিয়ে বিবাহিত জীবনে সমস্যা তৈরি হওয়া খুবই স্বাভাবিক। তাই বিয়ের আগেই স্পষ্টভাবে কথা বলে নেয়া দরকার।

অতীত কখনোই দূরে নয়

মানুষ হলে সম্পর্ক থাকবেই। অতীতের মন ভাঙার গল্প বা প্রাক্তন প্রিয়জন সকলেরই আছে। এই ব্যাপারটি নিয়ে মিথ্যা বলবেন না। বিয়ের আগেই সবকিছু খুলে বলুন। সত্য যতটা কুৎসিতই হোক না কেন তা গোপন করবেন না। এতে বাকি জীবন অন্তত এই দিক থেকে কোনো সমস্যার মোকাবেলা করতে হবে না আপনাকে।

এই ব্যাপারগুলোতে মনের ও মতামতের মিল না হলে কী করবেন? সে ক্ষেত্রে বিয়ের আগে অবশ্যই আরও ভালো করে ভেবে দেখার প্রয়োজন আছে।

সুত্র- ফেমিনা

প্রিয় লাইফ/কামরুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...