প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি

ওবায়দুল কাদেরকে সঙ্গে নিয়ে কাঁচপুর সেতু দেখতে যাবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের সুস্থ হয়ে ফিরলে তাকে নিয়ে ব্রিজটি দেখতে যাব। আপনারা সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।’

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০১৯, ১৩:২৯ আপডেট: ১৬ মার্চ ২০১৯, ১৩:২৯
প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০১৯, ১৩:২৯ আপডেট: ১৬ মার্চ ২০১৯, ১৩:২৯


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে সঙ্গে নিয়ে দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতু দেখতে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

১৬ মার্চ, শনিবার সকাল ১০টার দিকে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতুসহ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন শেষে তিনি একথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের সুস্থ হয়ে ফিরলে তাকে নিয়ে ব্রিজটি দেখতে যাব। আপনারা সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।’

এ সময় সেতুতে অতিরিক্ত ওজনের যানবাহন যেন না উঠতে পারে, সে বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন শেখ হাসিনা।

ওবায়দুল কাদের বর্তমানে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে কার্ডিওলোজি বিভাগের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. কোহ সিয়াম সুন ফিলিপের নেতৃত্বাধীন মেডিকেল বোর্ডের অধীনে চিকিৎসাধীন। ভারতের প্রখ্যাত চিকিৎসক ডা. দেবী শেঠীর পরামর্শে ৪ মার্চ, সোমবার বিকেলে হৃদরোগে আক্রান্ত ওবায়দুল কাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর নেওয়া হয়।

গত ৩ মার্চ, রবিবার ভোরে শ্বাসকষ্ট নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) ভর্তি হন ওবায়দুল কাদের। সেখানে এনজিওগ্রাম করার পর তার করোনারি ধমনীতে তিনটি ব্লক পান চিকিৎসকরা।

এদিকে সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, ৪০০ মিটার দৈর্ঘ এবং ১৮ মিটার প্রস্থ দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতুটি যানচলাচলের জন্য খুলে দিলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজট অনেকটা কমে আসবে। দ্বিতীয় মেঘনা ও দ্বিতীয় মেঘনা-গোমতি সেতুর নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের পথে এবং খুব শিগগির এ সেতু দুটিও যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

জাপানের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ওবায়শি করপোরেশন, শিমিজু করপোরেশন, জেএফই ইঞ্জিনিয়ার করপোরেশন এবং আইএইচআই ইনফ্রা সিস্টেম কোম্পানি লিমিটেড ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দ্বিতীয় মেঘনা ও দ্বিতীয় মেঘনা-গোমতি সেতুর পাশাপাশি দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করে। আগামী জুনে এই সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল, তবে নির্ধারিত সময়ের প্রায় চার মাস আগেই সেতুটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়।

প্রিয় সংবাদ/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...