প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার পর মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করে বক্তব্য রাখছেন ঢাবির নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর।ছবি: সংগৃহীত

গণভবনে গিয়ে আমার মনযোগ নষ্ট হয়ে গিয়েছিল: নুর

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে গণভবনে গিয়ে অনেক কিছু বলতে চেয়েও বলতে পারেননি বলে দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৭ মার্চ ২০১৯, ২০:৩৫ আপডেট: ১৭ মার্চ ২০১৯, ২০:৩৫
প্রকাশিত: ১৭ মার্চ ২০১৯, ২০:৩৫ আপডেট: ১৭ মার্চ ২০১৯, ২০:৩৫


প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার পর মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করে বক্তব্য রাখছেন ঢাবির নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর।ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) গণভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রনে গিয়ে অনেক কিছু বলতে চেয়েও বলতে পারেননি বলে দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর

১৭ মার্চ রবিবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন দাবি করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘গণভবনে অনেক কথা বলতে পারিনি। বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের দেখে আমার মনযোগ নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ ব্যক্তি। তার প্রতি শ্রদ্ধাবোধ থেকে আমি গণভবনে গিয়েছি।’

গতকাল শনিবার ডাকসু ও হল ছাত্র সংসদের নবনির্বাচিত নেতাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে গণভবনে আমন্ত্রণ জানান প্রধানমন্ত্রী। আমন্ত্রণে উপস্থিত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর পা ছুঁয়ে সালাম করেন নুর। পরবর্তীতে কাজ করার জন্য সহযোগিতাও চান প্রধানমন্ত্রীর কাছে।

সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে গণভবনে গিয়েছিলেন দাবি করে নুর বলেন, ‘আমার বক্তব্য নিয়ে বিভ্রান্তির কোনো কারণ নেই। শিক্ষার্থীদের সবার দাবির সঙ্গে একমত পোষণ করে সকল পদে পুনর্নির্বাচন চাইছি।’

এর আগে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ডাকসুর এজিএস প্রার্থী ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হোসেন। তিনি বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরে বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মর্যাদা ও সম্মান অক্ষুণ্ণ রাখতে এবং নির্বাচনকে প্রশ্নের ঊর্ধ্বে রাখতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মতামত ও দাবির আলোকে ১১ মার্চের এই বিতর্কিত নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় তফসিল ঘোষণা করে প্রশাসনের কাছে নতুন নির্বাচন দাবি জানাচ্ছি।’

এদিকে পুননির্বাচনসহ পাঁচ দফা দাবিতে আগামীকাল ১৮ মার্চ সোমবার ক্লাস বর্জন ও উপাচার্যের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে নির্বাচন বর্জনকারী প্যানেলগুলো। পৃথক এক সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন বর্জনকারী প্যানেলগুলোর পক্ষ থেকে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন স্বতন্ত্র জোট থেকে ভিপি প্রার্থী অরণি সেমন্তি খান। তাদের দাবিগুলো হল- পুনঃতফসিল দেয়া, উপাচার্যের পদত্যাগ, মামলা প্রত্যাহার ও হামলাকারীদের বিচার।

প্রিয় সংবাদ/কামরুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...