দুপুর ১টা পর্যন্ত এই ভোট কেন্দ্রে কোনো ভোটার আসেনি। ছবি: সংগৃহীত

ফটিকছড়ির দুই উপজেলায় ভোটার ৫৩৬০ জন, ৫ ঘণ্টায় আসেননি একজনও

দ্বিতীয় ধাপে চট্টগ্রামের পাঁচ উপজেলার মধ্যে পূর্ণ প্যানেলে ভোট গ্রহণ চলছে ফটিকছড়ি উপজেলায়।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৮ মার্চ ২০১৯, ১৬:৫০ আপডেট: ১৮ মার্চ ২০১৯, ১৬:৫২
প্রকাশিত: ১৮ মার্চ ২০১৯, ১৬:৫০ আপডেট: ১৮ মার্চ ২০১৯, ১৬:৫২


দুপুর ১টা পর্যন্ত এই ভোট কেন্দ্রে কোনো ভোটার আসেনি। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) দ্বিতীয় ধাপে চট্টগ্রামের পাঁচ উপজেলার মধ্যে পূর্ণ প্যানেলে ভোট গ্রহণ চলছে ফটিকছড়ি উপজেলায়। এ উপজেলার দুটি কেন্দ্রে পাঁচ ঘণ্টায়ও ভোট দিতে আসেননি কোনো ভোটার। ফলে ভোটের বাক্সগুলোও পড়ে আছে ফাঁকা। এ দুই কেন্দ্রের মোট ভোটার ৫৩৬০ জন। খবর মানবজমিনের

কেন্দ্র দুটি হলো—কাঞ্চননগর রুস্তুমিয়া মুনিরুল ইসলাম দাখিল মাদরাসা ও শাহনগর উচ্চ বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র। কাঞ্চননগর রুস্তুমিয়া মুনিরুল ইসলাম দাখিল মাদরাসা ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার আলমগীর কবির শাহনগর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মো. ইব্রাহিম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

জানতে চাইলে আলমগীর কবির বলেন, ‘আমারটা হচ্ছে মহিলা ভোট কেন্দ্র। সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হলেও দুপুর ১টা পর্যন্ত কোনো ভোটার কেন্দ্রে আসেনি। ফলে পাঁচ ঘণ্টায়ও একটি ভোট পড়েনি। ভোটাররা কেন আসছেন না সেটি তিনি জানেন না বলে জানান।

তিনি জানান, এ কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা দুই হাজার ৬৫০ জন। কিন্তু কোনো ভোটার না আসায় পোলিং এজেন্টরা অলস সময় কাটাচ্ছেন। ফলে ব্যালট বাক্সগুলোও খালি পড়ে আছে।

কেন্দ্রের পাশ্ববর্তী গ্রামের মুন্নুজান বেগম নামে এক নারী ভোটার বলেন, ‘গত এমপি নির্বাচনে ভোট দিতে পারিনি। উপজেলা নির্বাচনে ভোট দিয়ে কী লাভ? তাই এবারও ভোট দিতে কেন্দ্রে যাব না।’

একইভাবে ফটিকছড়ি উপজেলার শাহনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রিসাইডিং অফিসার মো. ইব্রাহিম বলেন, ‘সকাল ৮টা থেকে পোলিং এজেন্টরা কেন্দ্রে ভোট গ্রহণের অপেক্ষায় থাকলেও ভোটার নেই। দুপুর ১টা পর্যন্ত এ কেন্দ্রে কেউ ভোট দিতে আসেনি। ফলে এখানে কোনো সমস্যা হয়নি।’ এ কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা দুই হাজার ৭১০ জন বলে জানান তিনি।

প্রিয় সংবাদ/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...