শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক। ছবি: সংগৃহীত

‘রাজিবকে হত্যার উদ্দেশ্যে ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে ফেলে যায়’

রাজিব বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের ছাত্র এবং ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক। তিনি ছাত্রলীগ নেতা মুশফিকুর রহমান জিয়ার অনুসারী। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৩ মার্চ ২০১৯, ১৯:৫৭ আপডেট: ২৩ মার্চ ২০১৯, ১৯:৫৭
প্রকাশিত: ২৩ মার্চ ২০১৯, ১৯:৫৭ আপডেট: ২৩ মার্চ ২০১৯, ১৯:৫৭


শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রলীগ নেতাকে হত্যার উদ্দেশে ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তার নাম রাজিব সরকার।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২৩ মার্চ, শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে রাজিব সরকারকে একযোগে আক্রমণ করেন একই বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেনের কয়েকজন অনুসারী। এ সময় ইটের কয়েকটি টুকরো দিয়ে তার মাথায় আঘাত করেন হামলাকারীরা।

রাজিব বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের ছাত্র এবং ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক। তিনি ছাত্রলীগ নেতা মুশফিকুর রহমান জিয়ার অনুসারী। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে ইমন এন্টারপ্রাইজের সামনে রাজিব একা অবস্থান করছিলেন। এমন সময় তিন-চার জন এসে এলোপাতাড়ি আক্রমণ চালায় তার ওপর। একপর্যায়ে ইটের টুকরো দিয়ে আঘাত করলে তার মাথার পেছনের অংশ থেঁতলে যায়। তার মাথার পাশাপাশি পিঠে ও হাতে জিআই পাইপ ও ইট দিয়ে আঘাত করা হয়। পরে আহত অবস্থায় তাকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে শাবি ছাত্রলীগ নেতা মুশফিকুর রহমান ভুঁইয়া সাংবাদিকদের বলেন, ‘রাজিবকে হত্যার উদ্দেশ্যে তিনটি মোটরসাইকেলযোগে প্রতিপক্ষরা এসে ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে ফেলে চলে যায়।’

শাবি শাখা ছাত্রলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন বলেন, ‘ঘটনাটি অনাকাঙ্ক্ষিত ও দুঃখজনক। যে বা যারা এটি ঘটিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

প্রিয় সংবাদ/আজাদ চৌধুরী