অসুস্থ হয়ে পড়লে খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে নেওয়া হয়। ছবি: স্টার মেইল

খালেদা জিয়াকে বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তির দাবি মির্জা ফখরুলের

আমরা আশা করব সরকার বিষয়টা বুঝে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা ব্যবস্থা নেবে।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:১৯ আপডেট: ০১ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:১৯
প্রকাশিত: ০১ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:১৯ আপডেট: ০১ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:১৯


অসুস্থ হয়ে পড়লে খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে নেওয়া হয়। ছবি: স্টার মেইল

(প্রিয়.কম) বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তির দাবি জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

১ এপ্রিল, সোমবার দুপুরে খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নিয়ে আসার পর সাংবাদিকদের কাছে এ দাবি জানান তিনি।

চিকিৎসার জন্য সোমবার দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে খালেদা জিয়াকে বহনকারী গাড়ি বহর পুরান ঢাকার সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে বের হয়ে ১২টা ৩৬ মিনিটে বিএসএমএমইউতে পৌঁছায়। এর আগেই সকালে খালেদা জিয়ার ব্যবহার্য নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

হাসপাতালের একটি সূত্র জানায়, খালেদা জিয়ার জন্য ৬২১-৬২২ নম্বর কেবিন বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘রক্ত পরীক্ষার এক মাস পর খালেদা জিয়াকে আজ হাসপাতালে আনা হলো। তিনি এ হাসপাতালে আসতে চাচ্ছিলেন না। তার চাওয়া ছিল একটি বিশেষায়িত হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হোক। কোর্টের নির্দেশনাও তেমন ছিল। কিন্তু সরকার তার চাওয়ার ও কোর্টের নির্দেশনার কোনো গুরুত্ব দেয়নি।’

খালেদা জিয়াকে জোর করে বিএসএমএমইউতে আনা হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা সেটি বলতে পারব না। তবে তিনি ভীষণ অসুস্থ। তার এ মুহূর্তে সঠিক চিকিৎসা জরুরি। সরকারের কাছে দাবি- তার চিকিৎসায় যেন কোনো গাফিলতি করা না হয়। তার সঠিক চিকিৎসার জন্য বিশেষায়িত হাসপাতালে নেওয়া হোক।’

২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে দুর্নীতি মামলায় পুরান ঢাকার সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দী রয়েছেন খালেদা জিয়া। এর আগেও তিনি বিএসএমএমইউতে চিকিৎসা নিয়েছেন। তবে বেশ কিছুদিন ধরে তিনি শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকলেও ওই হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে রাজি হচ্ছিলেন না। তিনি ও তার দলের দাবি ছিল বেসরকারি ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার। কিন্তু সরকার তাতে রাজি হয়নি।

এদিকে সোমবার সকালে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম জানান, ‘খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসা নিতে রাজি হয়েছেন। আমাদের সবকিছুই প্রস্তুত আছে।’

প্রিয় সংবাদ/রুহুল