বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেছেন শেখ আবদুল আজিজ। ছবি: সংগৃহীত

প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল আজিজ আর নেই

মরহুম শেখ আবদুল আজিজকে কাল সকালে ঢাকায় এবং পরে মোরেলগঞ্জে নিজ গ্রামে জানাজা শেষে দাফন করা হবে।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ০৮ এপ্রিল ২০১৯, ২২:০২ আপডেট: ০৮ এপ্রিল ২০১৯, ২২:০৫
প্রকাশিত: ০৮ এপ্রিল ২০১৯, ২২:০২ আপডেট: ০৮ এপ্রিল ২০১৯, ২২:০৫


বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেছেন শেখ আবদুল আজিজ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ভাষা সংগ্রামী, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের মন্ত্রিসভার একাধিক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, আওয়ামী লীগের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য শেখ আবদুল আজিজ (৮৯) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

৮ এপ্রিল, সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিটে গুলশানে নিজ বাসায় বার্ধক্যজনিত কারণে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। 

মৃত্যুকালে তিনি এক ছেলে ও দুই মেয়ে রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

মরহুম শেখ আবদুল আজিজকে কাল সকালে ঢাকায় এবং পরে মোরেলগঞ্জে নিজ গ্রামে জানাজা শেষে দাফন করা হবে।

ভাষা সংগ্রামী শেখ আবদুল আজিজ ১৯২৯ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জ থানার টালিগাতি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি আওয়ামী লীগের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। তিনি ছিলেন দলটির সবোর্চ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য। তিনি বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রিসভার একাধারে যোগাযোগ, কৃষি, তথ্য এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী ছিলেন। এ ছাড়াও বিভিন্ন সময়ে তিনি দলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

দীর্ঘদিন সুপ্রিম কোর্টে আইন পেশায় নিয়োজিত ছিলেন শেখ আবদুল আজিজ। স্বাধীনতা ঘোষণা কমিটির আহ্বায়ক ছিলেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের প্রবাসী সরকারের ৯ নম্বর সেক্টরের লিয়াজোঁ অফিসার ছিলেন। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ ও এলএলবি পাস করেন।  

১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর সাড়ে তিন বছর কারাগারে ছিলেন শেখ আবদুল আজিজ। রাজনীতিই তার পেশা ও নেশা ছিল। বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের দাবিতে আন্দোলন করেছেন। 

আওয়ামী লীগের অন্যতম এই প্রতিষ্ঠাতার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীমসহ দলের নেতাকর্মীরা। 

আজ রাতেই মাহবুব-উল আলম হানিফসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা মরহুমের বাসায় যান। সেখানে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করেন এবং শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

প্রিয় সংবা/কামরুল/আজাদ চৌধুরী