মো. তরিকুল ইসলাম বাদশাহ ওরফে বাদশা ট্যাটু। ছবি: সংগৃহীত

কী করতেন ‘বাদশা ট্যাটু’, কেন তাকে গ্রেফতার করা হলো?

একজন নারীর শরীরে হাত দিয়ে মেসেজ করা ও কুরুচিপূর্ণ কথা বলার ভিডিও তৈরি করে তা ভাইরাল করার অপরাধে তাকে গ্রেফতার করেছে ডিএমপির সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগ।

আশরাফ ইসলাম
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৪৭ আপডেট: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৪৭
প্রকাশিত: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৪৭ আপডেট: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৪৭


মো. তরিকুল ইসলাম বাদশাহ ওরফে বাদশা ট্যাটু। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকা থেকে মো. তরিকুল ইসলাম বাদশাহ ওরফে বাদশা ট্যাটু নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই যুবকের একটি ‘ট্যাটু স্টুডিও’ আছে বলে জানা গেছে।

১৬ এপ্রিল, মঙ্গলবার তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

একজন নারীর শরীরে হাত দিয়ে মেসেজ করা ও কুরুচিপূর্ণ কথা বলার ভিডিও তৈরি করে তা ভাইরাল করার অপরাধে তাকে গ্রেফতার করেছে ডিএমপির সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগ।

অভিযুক্ত বাদশাহকে গ্রেফতারের সময় অশ্লীল ভিডিওসহ মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিএমপির সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) নাজমুল ইসলাম।

নাজমুল ইসলাম জানান, সম্প্রতি ফেসবুকে একজন নারীর সঙ্গে তার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে পড়ে। যেখানে এক নারীর দেহের নিম্নাংশে এক পুরুষ মেসেজ করে দেওয়া ছাড়াও কুরুচিপূর্ণ কথা বলছিলেন।

সাইবার ক্রাইম ইউনিটের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, তরিকুল বাদশাহ নামের এই ট্যাটু তৈরিকারক নিজের স্টুডিওতেই অশ্লীল ভিডিও তৈরি করে। পরে সেই ভিডিও ট্যাটু স্টুডিও নিউ মার্কেট নামে একটি ফেসবুক পেজে শেয়ার করে।

নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘এ ধরনের অশ্লীল অঙ্গভঙ্গিযুক্ত ভিডিও নিঃসন্দেহে নিরাপদ ইন্টারনেটের জন্য হুমকি। তাই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

জানা গেছে, তরিকুলের বিরুদ্ধে রমনা থানায় পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা করা হয়েছে। বুধবার তাকে আদালতে পাঠিয়ে চার দিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ।

প্রিয় সংবাদ/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

১ গাভী থেকে ১২৮টি গাভী

প্রিয় ২৩ ঘণ্টা, ৩০ মিনিট আগে

loading ...