ভারতে নির্বাচনি প্রচারণায় অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ। ছবি:সংগৃহীত

‘নির্বাচনি প্রচারে কে থাকবে আর থাকবে না, তার আইন নেই'

অভিবাসন দফতরের রিপোর্টের ভিত্তিতে ফেরদৌসের ব্যবসায়িক ভিসা বাতিল করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৩৪ আপডেট: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৩৪
প্রকাশিত: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৩৪ আপডেট: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৩৪


ভারতে নির্বাচনি প্রচারণায় অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ। ছবি:সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) নির্বাচনি প্রচারে কে থাকবে, কে থাকতে পারবে না তার কোনো আইন নেই বলে মন্তব্য করেছেন শ্রীরামপুরের তৃণমূল প্রার্থী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল প্রার্থীর পক্ষে বাংলাদেশি অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদের প্রচারে অংশ নেওয়া নিয়ে বিতর্ক প্রসঙ্গে তৃণমূল প্রার্থী একথা বলেন।

১৭ এপ্রিল, বুধবার সকাল থেকেই কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় শেওড়াফুলি ফাঁড়ি মোড় থেকে প্রচার শুরু করেন। বড় বড় হাত পাখায় প্রার্থীর ছবি নিয়ে ভোট প্রচারে অংশ নেন তৃনমূল সমর্থকরা। তখনই ফেরদৌস প্রসঙ্গে তাকে জিজ্ঞাসা করা হয়।

প্রসঙ্গত, অভিযোগ উঠে ভিসার শর্ত লঙ্ঘন করে রাজনৈতিক প্রচারে অংশ নিয়েছিলেন বাংলাদেশি নাগরিক ও চলচ্চিত্র অভিনেতা ফেরদৌস। সেই ধারাবাহিকতায় অভিনেতার বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপও নিয়েছে ভারত সরকার। রায়গঞ্জে তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে ভোট চেয়েছিলেন অভিনেতা ফেরদৌস। বিজেপির অভিযোগের পর বিষয়টি নিয়ে খোঁজখবর নিতে শুরু করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এদিকে অভিবাসন দফতর রিপোর্টে জানায়, ভারতে কাজের জন্য ভিসা দেওয়া হয়েছিল ফেরদৌস আহমেদকে। কিন্তু সেই শর্ত লঙ্ঘন করেছেন তিনি। অভিবাসন দফতরের রিপোর্টের ভিত্তিতে ফেরদৌসের ব্যবসায়িক ভিসা বাতিল করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তাকে অবিলম্বে ভারত ত্যাগের নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

প্রিয় সংবাদ/ প্রান্তিক/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...