প্রিয়াঙ্কা চৌধুরী। ছবি: সংগৃহীত

বহুগুণে গুণান্বিত এই তরুণী জনপ্রিয় এক ক্রিকেটারের স্ত্রী

এই তরুণীর স্বামী একজন জনপ্রিয় ক্রিকেটার। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড রয়েছে তার স্বামীর দখলে।

আশরাফ ইসলাম
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৩৯ আপডেট: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৪৮
প্রকাশিত: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৩৯ আপডেট: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৪৮


প্রিয়াঙ্কা চৌধুরী। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) এই তরুণীর স্বামী একজন জনপ্রিয় ক্রিকেটার। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড রয়েছে তার স্বামীর দখলে। এই তরুণী আর কেউ নন ভারতীয় ক্রিকেটার সুরেশ রায়নার স্ত্রী প্রিয়াঙ্কা চৌধুরী।

ছোটবেলায় প্রিয়াঙ্কার বাবাই ছিলেন রায়নার ক্রীড়া শিক্ষক। সে সময় একই এলাকায় থাকতেন রায়না ও প্রিয়াঙ্কার পরিবার। দুই পরিবারের মধ্যে ছিল ভালো সম্পর্ক। কিন্তু পরবর্তীতে প্রিয়াঙ্কার পরিবার পাঞ্জাবে চলে যায়। আর তাই দুই পরিবারের মধ্যে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। 

প্রিয়াঙ্কা ব্যাচেলর অব টেকনোলজি (বি টেক) পাস করেন। পরবর্তীতে তিনি ব্যাংকিং নিয়েও পড়াশোনা করেন। নেদারল্যান্ডসে চাকরি হলে সেখানে পাড়ি জমান। কিন্তু প্রতিভাবান প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে তখনো কোনো যোগাযোগ ছিল না রায়নার। 

ভারতীয় ক্রিকেটার সুরেশ রায়না ও তার স্ত্রী প্রিয়াঙ্কা। ছবি: সংগৃহীত

২০০৮ সালে আইপিএল খেলে ফেরার সময় বিমানবন্দরে ৫ মিনিটের জন্য প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে দেখা হয় রায়নার। সেই দেখাতেও তেমন কোনো কথা হয়নি। ২০১৫ সালে সুরেশ রায়না অস্ট্রেলিয়ায় খেলতে গেলে তার মা তাকে ফোন দিয়ে জানান, রায়নার ছোটবেলার এক বান্ধবীকেই তার মা পাত্রী হিসেবে পছন্দ করেছেন। পরবর্তীতে জানতে পারেন, পেশায় ইঞ্জিনিয়ার ও ব্যাংকার প্রিয়াঙ্কাই সেই পাত্রী।

২০১৫ সালের এপ্রিলে বিয়ে হয় রায়না-প্রিয়াঙ্কার। বিয়ের পরও নেদারল্যান্ডসেই থাকতেন প্রিয়াঙ্কা। তবে এই দম্পতির একটি মেয়ে হওয়ার পর চাকরি ছেড়ে দেশে ফিরে আসেন তিনি। 

ব্লগার ও সমাজকর্মী হিসেবেও প্রিয়াঙ্কার আলাদা একটি পরিচয় রয়েছে। ছবি: সংগ্রহীত

বর্তমানে প্রিয়াঙ্কা সামাজিক বিভিন্ন কাজকর্ম ছাড়াও নারীদের ক্ষমতায়ন ও বাবা-মা হারা শিশুদের নিয়ে কাজ করেন। গ্রাসিয়া রায়না ফাউন্ডেশন নামে কর্ণাটকে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাও রয়েছে প্রিয়াঙ্কার। এ ছাড়া রেডিওতে আরজে হিসেবে একটি অনুষ্ঠানও করছেন প্রিয়াঙ্কা।

প্রিয়াঙ্কা একজন ব্লগারও। তার লেখার বিষয়, মা, সন্তান মাতৃত্ব, নারীদের ক্ষমতায়ন ও অনাথ শিশুদের মানসিক অষাদগ্রস্ততা।

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...