ডোয়াইন জনসন (দ্য রক), টেলর সুইফট ও মোহাম্মদ সালাহ। ছবি: সংগৃহীত

দ্য রক-টেলর সুইফটের সঙ্গে সালাহ

স্বাভাবিকভাবেই বিষয়টি নিয়ে উচ্ছ্বসিত লিভারপুলের মিসরীয় এই তারকা ফুটবলার।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৩৯ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৪১
প্রকাশিত: ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৩৯ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৪১


ডোয়াইন জনসন (দ্য রক), টেলর সুইফট ও মোহাম্মদ সালাহ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ফুটবল পায়ে মাঠে দাপট দেখিয়ে বিশ্বের সেরা প্রভাবশালী ব্যক্তির তালিকায় জায়গা করে নিলেন মোহাম্মদ সালাহ। আমেরিকান ভিত্তিক বিখ্যাত টাইম ম্যাগাজিনের ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তির তালিকায় জায়গা হয়েছে ইংলিশ ক্লাব লিভারপুরের মিসরীয় এই ফুটবল তারকার। এই তালিকায় আছেন সাবেক রেসলার ও বলিউড সুপারস্টার ডোয়াইন জনসন (রক নামে বেশি পরিচিত) এবং আমেরিকান জনপ্রিয় পপ গায়িকা টেলর সুইফট

শুধু তালিকাতে থাকাই নয়; ডোয়াইন, সুইফটের মতো টাইম ম্যাগাজিনের কভারে জায়গা হয়েছে তার। যেখানে ফুটবল নিয়ে কসরত করা অবস্থায় সালাহকে দেখা যাচ্ছে। অন্যান্য কভারে জায়গা হয়েছে অভিনেত্রী সাদ্রা ওহ, সাংবাদিক গেইল কিং, রাজনীতিবিদ ন্যান্সি পিলোসিদের।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওমাবার স্ত্রী মিশেল ওবামা, এনবিএ তারকা লিবর্ন জেমস, আমেরিকান সকার খেলোয়াড় অ্যালেক্স মরগান, টেনিস খেলোয়াড় নাওমি ওসাকা, মিডল ডিসটেন্ট রানার কস্টার সেমেনিয়া, গলফার ও গেমার রিচার্ড টাইলার ব্লেভিন্সও ১০০ প্রভাবশালীর তালিকায় জায়গা পেয়েছেন।

টাইমের কভারে ডোয়াইন জনসন (দ্য রক), টেলর সুইফট ও মোহাম্মদ সালাহ। ছবি: সংগৃহীত

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে সালাহর কভার ফটো পোস্ট করেছে টাইম ম্যাগাজিন। কভার ফটো দিয়ে লিভারপুল তারকাকে নিয়ে তারা লিখেছে, ‘মানুষ সব সময় তোমার কাছ থেকে বড় কিছু আশা করে। বাচ্চাদের দেখ, ওরা তোমার টি-শার্ট পরে এবং একদিন তোমার মতো হওয়ার স্বপ্ন দেখে।’

প্রথম মিসরীয় হিসেবে টাইম ম্যাগাজিনের ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তির তালিকায় জায়গা হয়েছে সালাহর। স্বাভাবিকভাবেই বিষয়টি নিয়ে উচ্ছ্বসিত বিশ্বের অন্যতম সেরা এই ফুটবলার, ‘প্রথম মিসরীয় হিসেবে এই অভিজ্ঞতা হলো, আগে কেউ এটা করতে পারেনি। এটা অবশ্যই আলাদা কিছু।’

লিঙ্গ বৈষম্য নিয়েও কথা বলেন সালাহ। লিভারপুল ফরোয়ার্ড বলেন, ‘আমাদের সংস্কৃতিতে আমরা যেভাবে নারীদের সঙ্গে ব্যবহার করি, আমার মনেহয় এটা পরিবর্তন করা দরকার। আর এটা ঐচ্ছিক কোনো ব্যাপার নয়। আমি আগের চেয়ে নারীদের বেশি সমর্থন দিই। কারণ আমি মনে করি, তারা আরও বেশি সমর্থনের দাবিদার।’