আহমেদ শরীফ। ছবি: সংগৃহীত

শারীরিক অসুস্থতা ও রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে যা বললেন আহমেদ শরীফ

আহমেদ শরীফ জানান, দীর্ঘদিন ধরেই তিনি ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশনসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন।

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিয়.কম
প্রকাশিত: ২২ এপ্রিল ২০১৯, ২০:২১ আপডেট: ২২ এপ্রিল ২০১৯, ২০:২১
প্রকাশিত: ২২ এপ্রিল ২০১৯, ২০:২১ আপডেট: ২২ এপ্রিল ২০১৯, ২০:২১


আহমেদ শরীফ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) জনপ্রিয় অভিনেতা আহমেদ শরীফ নিজের ও তার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে গত ১৮ এপ্রিল ৩৫ লাখ টাকা চিকিৎসা সহায়তা পেয়েছেন। এর পর থেকেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। কেউ কেউ বলছেন, তার অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো হওয়ার পরও তিনি কেন এই সহায়তা নেবেন। পাশাপাশি তার রাজনৈতিক মতাদর্শ নিয়েও ফেসবুকে তুমুল সমালোচনা চলছে।

এসব বিষয়ে আহমেদ শরীফ জানান, দীর্ঘদিন ধরেই ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশনসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন তিনি।

সম্প্রতি তার পিত্তথলিতে পাথর ধরা পড়ায় সেটিরও অস্ত্রোপচার করতে হয়েছে। সে জন্য ঠিকমতো তিনি হাঁটাচলাও করতে পারেন না।

এই অভিনেতার সংযোজন, ‘কয়েক বছর আগে শুটিং করতে গিয়ে আমর পা ভেঙে গিয়েছিল। সে সময় অস্ত্রোপচার করে পায়ে রড বসানো হয়েছে। আরেকটা কথা, ১৮ বছর ধরে ডায়াবেটিসে ভুগছি।’

কথার এক প্রসঙ্গে আহমেদ শরীফ জানান, তার স্ত্রীর চোখের রেটিনার সমস্যায় ভুগছেন। সঠিক চিকিৎসার অভাবে তার চোখ এখন নষ্ট হওয়ার পথে। এক মেয়ে আফিয়া মোবাসসিরা মৌরি ও স্ত্রীকে নিয়ে খুব কঠিন সময় পার করছেন বলে দাবি তার।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা গেছে, আহমেদ শরীফের বড় ভাই বিজিএমই’র সাবেক সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান। ডেনিম গ্রুপের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর হিসেবে আছেন আহমেদ শরীফ। উত্তরায় তার হাউজিং ব্যবসাও আছে।

১৮ এপ্রিল শেখ হাসিনার কাছ থেকে নিজেই চেক গ্রহণ করেন আহমেদ শরীফ। ছবি: সংগৃহীত

এ প্রসঙ্গে আহমেদ শরীফ বলেন, ‘অভিনয়ের বাইরে আমি কখনো কোনো পেশার সঙ্গে জড়িত ছিলাম না। যারা বলছেন আমি হাউজিং ব্যবসা করি, তারা মিথ্যাচার করছেন। গত ৪৮ বছর দেশের মানুষের জন্য কাজ করেছি, ২০ বছর ধরে ভাড়া বাসায় থাকি।’

এদিকে চিকিৎসা সহায়তা গ্রহণ করার পর থেকেই আহমেদ শরীফের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়েছে। সেই সঙ্গে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি তার নেতিবাচক ধারণার কথাও উঠে এসেছে।

রাজনৈতিক আদর্শে বিএনপি মতাদর্শের আহমেদ শরীফ। একসময় দলটির সাংস্কৃতিক ফ্রন্ট জাসাসের সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছেন।

এই অভিনেতা বলেন, ‘১৯৭১ সালের ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের দিন আমিও সেখানে উপস্থিত ছিলাম। সেদিন বঙ্গবন্ধুর ভাষণ শুনে আমি নিশ্চিত ছিলাম আমরা স্বাধীন হব। বঙ্গবন্ধু ছাড়া এই দেশ কোনোভাবেই স্বাধীন হতো না।’

সুভাষ দত্তের ‘অরুণোদয়ের অগ্নিসাক্ষী’তে নায়ক হিসেবে আহমেদ শরীফের চলচ্চিত্র যাত্রা শুরু হলেও পরে খলনায়ক হিসেবে ‘বন্দুক’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেই নজর কাড়েন তিনি।

আট শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন আহমেদ শরীফ; যার অধিকাংশেই খলনায়কের চরিত্রে ছিলেন তিনি। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাবেক সভাপতি আহমেদ শরীফ।

আহমেদ শরীফ মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ ছবিতে সর্বশেষ অভিনয় করেছিলেন। ছবিটি মুক্তি পায় ২০১৭ সালের ২০ অক্টোবর। আর মুক্তির অপেক্ষায় আছে শামীম আহমেদ রনি পরিচালিত ‘শাহেনশাহ’।

প্রিয় বিনোদন/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...