জায়ান চৌধুরী আওয়ামী লীগ নেতা শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি। ছবি: সংগৃহীত

দেশে পৌঁছেছে জায়ানের নিথর দেহ

জায়ানের দাফনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। বাদ আসর বনানীর চেয়ারম্যানবাড়ি মাঠে তার জানাজা হবে।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১৩:৫০ আপডেট: ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১৩:৫০
প্রকাশিত: ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১৩:৫০ আপডেট: ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১৩:৫০


জায়ান চৌধুরী আওয়ামী লীগ নেতা শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) দেশে পৌঁছেছে শ্রীলঙ্কায় নৃশংস বোমা হামলায় নিহত জায়ান চৌধুরীর মরদেহ। ২৪ এপ্রিল, বুধবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সের বিমানটি হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করে।

জায়ান চৌধুরী আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফুপাতো ভাই শেখ ফজলুল করিম সেলিমের মেয়ের দিকের নাতি।

এদিকে জায়ানের দাফনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। বিমানবন্দর থেকে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে বনানীতে নানার তথা শেখ সেলিমের বাসভবনে। বাদ আসর বনানীর চেয়ারম্যানবাড়ি মাঠে তার জানাজা হবে। দাফন করা হবে বনানী কবরস্থানে। জানাজা উপলক্ষে বনানীর চেয়ারম্যানবাড়ি মাঠে বিশাল সামিয়ানা টানানো হয়েছে। জোরদার করা হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থাও। মাঠের আশপাশে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

শেখ সেলিমের মেয়ে শেখ আমেনা সুলতানা সোনিয়া তার স্বামী মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স ও দুই ছেলেকে নিয়ে শ্রীলঙ্কায় বেড়াতে গিয়েছিলেন। তারা উঠেছিলেন কলম্বোর পাঁচ তারকা একটি হোটেলে। রবিবার সকালে ইস্টার সানডের প্রার্থনার মধ্যে শ্রীলঙ্কায় তিনটি গির্জা ও তিনটি হোটেলে বোমা হামলা হয়। এর মধ্যে হামলার শিকার একটি হোটেলের নিচতলার রেস্তোরাঁয় সকালের নাস্তা করতে গিয়েছিলেন প্রিন্স ও তার বড় ছেলে জায়ান চৌধুরী। ছোট ছেলে জোহানকে নিয়ে শেখ সোনিয়া ওই সময় হোটেলের কক্ষে ছিলেন। বোমা হামলায় প্রিন্স আহত হন এবং ছেলে জায়ান নিখোঁজ হয়। পরে জায়ানের মৃত্যুর খবর আসে।

শ্রীলঙ্কার ওইদিনের সিরিজ বোমা হামলায় এখন পর্যন্ত ৩৫৯ জন নিহত হয়েছেন। এর দায় স্বীকার করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

প্রিয় সংবাদ/রুহুল