মহেন্দ্র সিং ধোনি। ছবি: সংগৃহীত

ফ্ল্যাট বাঁচাতে আদালতে ধোনি

ধোনির দাবি, নিয়ম মেনে ও যথাযথ মূল্য দিয়েই ফ্ল্যাট কিনেছেন তিনি।

মুশাহিদ মিশু
Writer
প্রকাশিত: ২৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৫১ আপডেট: ২৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৫১
প্রকাশিত: ২৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৫১ আপডেট: ২৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৫১


মহেন্দ্র সিং ধোনি। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) নিয়ে এই মুহূর্তে ব্যস্ত সময় পার করছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। আইপিএল শেষে আসন্ন ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়বেন তারা। এরই মধ্যে ভারতের ভক্ত ও সমর্থকদের জন্য দুঃসংবাদ বয়ে এনেছে মহেন্দ্র সিং ধোনি ও রবীন্দ্র জাদেজার অসুস্থতার খবর।

আইপিএলের এবারের আসরে চেন্নাই সুপার কিংসের জার্সিতে খেলছেন ধোনি-জাদেজা দুজনই। কিন্তু অসুস্থতার জন্য মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে চেন্নাইয়ের সর্বশেষ ম্যাচে খেলতে পারেননি তারা। এরই মধ্যে নতুন ঝামেলায় পড়েছেন ধোনি। ভারতের সাবেক এই অধিনায়কের কেনা ফ্ল্যাটটি বৈধ কি না, তা নিয়ে ইতোমধ্যেই প্রশ্ন উঠেছে। ফ্ল্যাটটি বাঁচাতে আদালতে পর্যন্ত ছুটতে হয়েছে ধোনিকে।

রিয়েল এস্টেট কোম্পানি হিসেবে ভারতে বেশ নাম ডাক ছিল আম্রপালি গ্রুপের। একসময় প্রতিষ্ঠানটির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে কাজ করতেন ধোনি। কিন্তু আম্রপালি গ্রুপের বিরুদ্ধে ফ্ল্যাট হস্তান্তরে দেরি করার অভিযোগ উঠলে শুভেচ্ছা দূতের পদ থেকে সরে দাঁড়ান ভারতের সাবেক এই অধিনায়ক।

এরপর প্রতিষ্ঠানটির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হন আরেক ভারতীয় ক্রিকেটার হরভজন সিং। এই ঘটনাটি এখানে শেষ হতে পারত। কিন্তু তা আর হলো কই? এবার ধোনির বিরুদ্ধে আম্রপালি গ্রুপের কাছ থেকে অবৈধভাবে ফ্ল্যাট কেনার অভিযোগ উঠেছে।

ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর থাকাকালীন আম্রপালি গ্রুপের কাছ থেকে একটি ফ্ল্যাট কেনেন ধোনি। এবার অভিযোগ উঠেছে, অবৈধ উপায়ে ভারতের নামী-দামি ব্যক্তিদের স্বল্প মূল্যে ফ্ল্যাট পাইয়ে দিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। অভিযোগ সত্য হলে ফ্ল্যাটগুলো হারাতে হতে পারে ক্রেতাদের। সেটা ঠেকাতেই মরিয়া ধোনি।

জানা যায়, নয়ডায় সেক্টর-৪৫ এলাকায় মাত্র ২০ লাখ টাকায় ৫৮০০ বর্গ ফুটের ওই ফ্ল্যাটটি কিনেছিলেন ধোনি। ২০০৯ সালে কেনা হয়েছিল ফ্ল্যাটটি। কিন্তু সেই সময়ই ওই ফ্ল্যাটের বাজারমূল্য ছিল প্রায় ১ কোটি ২৫ লাখ টাকা। তবে ধোনির দাবি, নিয়ম মেনে ও যথাযথ মূল্য দিয়েই ফ্ল্যাট কিনেছেন তিনি।

ধোনি আরও জানিয়েছেন, আম্রপালি গ্রুপের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে কাজ করার সময় প্রতিষ্ঠানটি তার পাওনা টাকা দিতে পারেনি। এজন্য তাকে ওই দামে ফ্ল্যাটটি দিয়েছে তারা।

প্রিয় খেলা/রিমন

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...