বুড়িগঙ্গা নদীর ময়লাযুক্ত পানি। ফাইল ছবি

বুড়িগঙ্গার পানি দূষণরোধে কী কী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে জানতে চায় হাইকোর্ট

দুই সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের এ বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২ মে ২০১৯, ১৯:২৬ আপডেট: ০২ মে ২০১৯, ১৯:২৬
প্রকাশিত: ০২ মে ২০১৯, ১৯:২৬ আপডেট: ০২ মে ২০১৯, ১৯:২৬


বুড়িগঙ্গা নদীর ময়লাযুক্ত পানি। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) ঢাকার বুড়িগঙ্গার পানি দূষণরোধে কী কী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে সে বিষয়ে জানাতে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের এ বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

২ মে, বৃহস্পতিবার হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) এক সম্পূরক আবেদনের প্রেক্ষিতে বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। পরে আদালত থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘জনস্বার্থে করা এক রিট মামলার প্রেক্ষিতে বুড়িগঙ্গার পানি দূষণ রোধে ২০১১ সালে আদালত অনেক নির্দেশনা দিয়েছিলেন। নদীর ভেতরে যে সমস্ত সুয়ারেজ ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল লাইন আছে, সেগুলো ছয় মাসের মধ্যে বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিল। একইসঙ্গে বুড়িগঙ্গার তীরে যাতে ময়লা আবর্জনা ফেলতে না পারে সে জন্যে সচেতনতামূলক প্রোগ্রাম করার জন্য বলা হয়েছিল রায়ে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সংশ্লিষ্টরা এই নির্দেশনাগুলো পুরোপুরি পালন না করায় এ সম্পূরক আবেদন করা হয়েছিল। শুনানি শেষে আদালত রায়ে যেসব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল, তা প্রতিপালনে সংশ্লিষ্টরা কী কী পদক্ষেপ নিয়েছে সে ব্যাপারে দুই সপ্তাহের মধ্যে একটি অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করতে বলেছেন। পরবর্তী আদেশের জন্য ২০ মে দিন ধার্য করেছেন আদালত।’

প্রিয় সংবাদ/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...