ছেলের বাঁশের আঘাতে আহত মা চুকেরা খাতুন। ছবি: সংগৃহীত

জমি লিখে না দেওয়ায় ছেলের হাতে রক্তাক্ত মা

ছেলে-মেয়েরা ছুকেরা খাতুনের দায়িত্ব কেউ নিতে চায় না।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩ মে ২০১৯, ১২:৫৫ আপডেট: ০৩ মে ২০১৯, ১২:৫৫
প্রকাশিত: ০৩ মে ২০১৯, ১২:৫৫ আপডেট: ০৩ মে ২০১৯, ১২:৫৫


ছেলের বাঁশের আঘাতে আহত মা চুকেরা খাতুন। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) জমি লিখে না দেওয়ায় বাঁশের আঘাতে ছেলের হাতে এক বৃদ্ধ মায়ের আহত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার সিন্দরখান ইউনিয়নের গুলগাঁও গ্রামে।

ছেলের হাতে রক্তাক্ত বৃদ্ধ মা ছুকেরা বেগম (৭০) থানায় অভিযোগ দিতে এসে জানান, তার দুই ছেলে ও দুই মেয়ে। আর এক মেয়ে মারা গেছেন। তার বাবার বাড়ি থেকে পাওয়া ১৫ শতাংশ জমি রয়েছে। এই জমি বড় ছেলে জহুর আলীর (৪৫) নামে দিয়ে দেওয়ার জন্য বহু দিন যাবৎ হুমকি ও অত্যাচার করে যাচ্ছে তাকে। সামাজিক লজ্জায় কাউকে কিছু এতোদিন বলেননি। কিন্তু গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বড় ছেলে তার নামে জমি দিয়ে দেওয়ার জন্য চাপ দেয়। তখন তিনি (ছুকেরা খাতুন) অপারগতা প্রকাশ করায় একটি কাটা বাঁশ দিয়ে তাকে মেরে আহত করে। পরে হাসপাতালে নিয়ে হাতে ও বুকে সেলাই দেওয়া হয়। 

ঘটনার পর প্রতিবেশী ব্যবসায়ী মো. মকসুদ আলী বৃদ্ধাকে আহতাবস্থায় থানায় নিয়ে যান। তিনি জানান, তার ছেলে মেয়েরা তার দায়িত্ব কেউ নিতে চায় না। তিনি বৃদ্ধ বয়সে মানুষের বাড়িতে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন।

এ বিষয়ে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি (তদন্ত) সোহেল রানা জানান, গতকাল বেলা সাড়ে ১১টায় আহতাবস্থায় শ্রীমঙ্গল থানায় অভিযোগ নিয়ে আসেন গুলগাঁও গ্রামের আজগর আলীর স্ত্রী ৭০ বছরের বৃদ্ধা ছুকেরা খাতুন। তার হাতে, মাথায় ও বুকে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। দ্রুত চিকিৎসার জন্য তাকে শ্রীমঙ্গল সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

প্রিয় সংবাদ/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...