স্টেডিয়ামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ছবি: সংগৃহীত

প্রধানমন্ত্রীকে যে কথা আর বলেন না বিসিবি সভাপতি!

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে বলতেই তিনি থামিয়ে দিয়ে বলেন, ‘এ কথা আর বইলেন না।’

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১২ মে ২০১৯, ১০:৪৭ আপডেট: ১২ মে ২০১৯, ১০:৪৭
প্রকাশিত: ১২ মে ২০১৯, ১০:৪৭ আপডেট: ১২ মে ২০১৯, ১০:৪৭


স্টেডিয়ামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) নিদাহাস ট্রফির ফাইনালের ঘটনা। সেদিন ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয় ছিল হাতের মুঠোয়। কেননা তখনো ১২ বলে জিততে ভারতের দরকার ছিল ৩৪ রান। জয়ের ব্যাপারে এতটাই নিশ্চিত ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রেসিডেন্ট, যে কলম্বোর আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামের ভিআইপি বক্স থেকে ফোন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে। জানিয়েছিলেন, প্রথমবারের মতো ফাইনাল জিততে চলেছে বাংলাদেশ!

ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস। ১৯ তম ওভারে রুবেল হোসেন দিয়ে বসলেন ২২ রান। শেষ ওভারে সমীকরণ নেমে এল ১২ রানে। বোলিং আক্রমণে ছিলেন সৌম্য সরকার। শেষ পর্যন্ত খণ্ডকালীন এই বোলারের দুর্দান্ত বোলিংয়ে সমীকরণ দাঁড়ায় ১ বলে পাঁচ রান। অর্থাৎ জিততে হলে শেষ বলে ছক্কা হাঁকাতেই হবে ভারতকে। চেষ্টা করেছিলেন সৌম্য। কিন্তু হয়নি, ছক্কা মেরে দলকে জিতিয়ে দেন দীনেশ কার্তিক।

এরপর এশিয়া কাপেও স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে সেই ভারতের কাছে। এখনও শিরোপা জেতা হয়নি টাইগারদের। এবার আয়ারল্যান্ডে চলতি ত্রিদেশীয় সিরিজ জয়ের সুযোগ রয়েছে টাইগারদের সামনে। উইন্ডিজের বিপক্ষে জিতে এই সিরিজে বেশ ভালো অবস্থানেই রয়েছে বাংলাদেশ। এ কথা ১১ মে, শনিবার বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে বলতেই তিনি থামিয়ে দিয়ে বলেন, ‘এ কথা আর বইলেন না।’

এরপর বেদনাবিধুর নিদাহাস ট্রফির সেই ফাইনালের প্রসঙ্গ এনে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘শোনেন, নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে আপাকে (প্রধানমন্ত্রী) ফোন করে এ কথাই বলছিলাম, ‘‘আপা, এই প্রথম...(ত্রিদেশীয় সিরিজ) জিততে যাচ্ছি।’’কে জানে, শেষ দুই ওভারে অমন হবে। এর চেয়ে দুঃখ আর কী হতে পারে! এরপর থেকে আর কিছু বলি না। ম্যাচটা ভুলতেই পারি না। এত রান করা সম্ভব ( ১২ বলে ৩৪)? ওই ম্যাচ না জেতার কোনো কারণই ছিল না।’

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...