ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বলিউডের নায়িকা টুইঙ্কেল খান্না। ছবি সংগৃহীত

নরেন্দ্র মোদির ধ্যানের ছবি নিয়ে টুইঙ্কেলের মশকরা!

উনি আমার উপরই টুইটারে উগড়ে দেন তাতে আপনি শান্তিতে থাকেন। এভাবই আমি আপনারও কাজে লাগি। (হাসতে হাসতে)’

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২১ মে ২০১৯, ১০:৩০ আপডেট: ২১ মে ২০১৯, ১০:৩৩
প্রকাশিত: ২১ মে ২০১৯, ১০:৩০ আপডেট: ২১ মে ২০১৯, ১০:৩৩


ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বলিউডের নায়িকা টুইঙ্কেল খান্না। ছবি সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সপ্তম দফার নির্বাচনী প্রচার শেষ করেই ‘কেদারনাথ’ সফরে যান। কেদারনাথের গুহায় দীর্ঘক্ষণের জন্য তার ধ্যানে বসার ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়ে। প্রধানমন্ত্রী নিজেও সেই ছবি পোস্ট করেছেন। যা নিয়ে শেষ দফার ভোটের আগে নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ এনেছেন বিরোধীরা।

এদিকে, ২০ মে সোমবার প্রধানমন্ত্রীর এই ধ্যানে বসার ঘটনাকে কিছুটা মশকরা করেই একটি ছবি পোস্ট করেছেন অক্ষয় কুমারপত্নী টুইঙ্কেল খান্না। যে ছবিতে গেরুয়া রঙের একটি পশুর মূর্তির পাশে টুইঙ্কেলকে মনসংযোগে বসতে দেখা গেছে।

ছবির ক্যাপশানে টুইঙ্কেল লিখেছেন, ‘গত বেশ কয়েকদিন ধরে এ ধরনের আধ্যাত্মিক ও মনসংযোগের ছবি দেখে আমি মেডিটেশন ফটোগ্রাফির পোজ ও অ্যাঙ্গেলের উপর ওয়ার্কশপ করব ভাবছি।’

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে টুইঙ্কেল খান্নার স্বামী অক্ষয় কুমার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির একটি অরাজনৈতিক সাক্ষাৎকার নেন। যেখানে অক্ষয় নরেন্দ্র মোদিকে বলেন, ‘আমি খেয়াল করেছি, আপনি নিয়মিত টুইটার থেকে শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়া ফলো করেন।’

নরেন্দ্র মোদির ধ্যানে বসার ঘটনাকে কিছুটা মশকরা করেই টুইঙ্কেল খান্নার টুইট। ছবি: সংগৃহীত

অক্ষয়ের এই কথা প্রসঙ্গেই নরেন্দ্র মোদি হাসতে হাসতে বলেন, ‘আমি আপনার ও আপনার স্ত্রী টুইঙ্কেলের টুইটারও ফলো করি। কখনো কখনো আমার মনে হয় টুইঙ্কেল আমার উপর রাগ টুইটারে উগড়ে দেন। এতে আমার মনে হয় আপনার ও আপনার স্ত্রী পারিবারিক জীবন অনেক শান্তির হয়। ওনার পুরো রাগ যখন উনি আমার উপরই টুইটারে উগড়ে দেন তাতে আপনি শান্তিতে থাকেন। এভাবই আমি আপনারও কাজে লাগি (হাসতে হাসতে)।’

যদিও টুইঙ্কেলের এই ধ্যান নিয়ে মশকরা করে পোস্ট করা ছবিটিও কী প্রধানমন্ত্রীর নজরে এসেছে? এমন প্রশ্নও তুলেছেন অনেকেই।

প্রিয় সংবাদ/আশরাফ