আসিফ আলী ও যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় তার মেয়ে ফাতিমা। ছবি: সংগৃহীত

মেয়ে হারানোর শোক ভুলে বিশ্বকাপে খেলবেন এই পাকিস্তানি ক্রিকেটার

গত ১৯ মে ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে মারা যায় আসিফ আলীর মেয়ে।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২১ মে ২০১৯, ১৮:১২ আপডেট: ২১ মে ২০১৯, ১৮:১২
প্রকাশিত: ২১ মে ২০১৯, ১৮:১২ আপডেট: ২১ মে ২০১৯, ১৮:১২


আসিফ আলী ও যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় তার মেয়ে ফাতিমা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) বেশ কিছুদিন ধরেই ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করছিল আসিফ আলীর একমাত্র মেয়ে ফাতিমা। যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে চিকিৎসা চলছিল দুই বছর বয়সী ফাতিমার। অসুস্থ মেয়েকে হাসপাতালে রেখেই ইংল্যান্ডে খেলতে গিয়েছিলেন আসিফ আলী। সেখানে বসেই মেয়ের মৃত্যুর খবর পান এই পাকিস্তানি ক্রিকেটার।

মেয়েকে হারানোর পরদিনই পাকিস্তানের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা পেয়ে যান আসিফ আলী। আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপের জন্য ঘোষিত পাকিস্তানের ১৫ সদস্যের প্রাথমিক স্কোয়াডে না থাকলেও সদ্য সমাপ্ত ইংল্যান্ড সিরিজে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের স্বীকৃতি হিসেবে চূড়ান্ত স্কোয়াডে সুযোগ পেয়েছেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। তাকে জায়গা করে দিতে স্কোয়াড থেকে ছেঁটে ফেলা হয়েছে ওপেনার আবিদ আলীকে।

গত ১৯ মে ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে মারা যায় আসিফ আলীর মেয়ে। এদিন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডেতে ব্যাট হাতে লড়াই করছিলেন বাবা আসিফ আলী। সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডেতে ২২ রানের ইনিংসটি খেলে সাজঘরে ফেরার পরই মেয়ের মৃত্যুর সংবাদ পান ডানহাতি এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

এই ঘটনায় বিশ্বকাপে আসিফের খেলা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়। তবে প্রধান নির্বাচন ইনজামাম-উল হক অবশ্য আশা করছেন, আসিফ বিশ্বকাপের আগেই দলে যোগ দেবেন। ডানহাতি এই মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যানের জন্য অপেক্ষাও করবে পাকিস্তান। জানা গেছে, দলে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে ইতোমধ্যেই সবুজ সংকেত দিয়েছেন আসিফ।

বিশ্বকাপ দলে পরিবর্তন নিয়ে অনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে ইনজামাম বলেন, ‘বিশ্বকাপের আগে যে প্রস্তুতি ম্যাচগুলো হবে সেখানেও আমরা পূর্ণশক্তির দল নিয়ে নামতে চাই। প্রস্তুতি ম্যাচের আগেই আসিফের দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার কথা। যদি প্রস্তুতি ম্যাচের আগে দলের সঙ্গে যোগ দিতে না পারে, তাহলে আমরা অপেক্ষা করব। ও যখন চাইবে তখনই যোগ দেবে।’

শেষ মুহূর্তে আসিফকে দলে নেওয়ার ব্যাখ্যায় ইনজামাম বলেন, ‘আবিদ আলীকে বাদ দেওয়া খুব কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু ৬-৭ নম্বর পজিশনে আমাদের একজন পাওয়ার হিটার প্রয়োজন ছিল। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বশেষ সিরিজে আসিফ দুর্দান্ত পারফর্ম করেছে। তাই বিশ্বকাপে ওকে আমাদের প্রয়োজন।’

প্রিয় সংবাদ/কামরুল