যশোরে অবস্থিত শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক। ছবি: প্রিয়.কম

১০০ একর জমিতে নির্মিত হবে ‘চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আইটি পার্ক’

এই আইটি পার্কে হার্ডওয়্যার ও আইটি সার্ভিস নিয়ে কাজ করা হবে।

রাকিবুল হাসান
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২২ মে ২০১৯, ১২:৪৯ আপডেট: ২২ মে ২০১৯, ১২:৪৯
প্রকাশিত: ২২ মে ২০১৯, ১২:৪৯ আপডেট: ২২ মে ২০১৯, ১২:৪৯


যশোরে অবস্থিত শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্মাণ করা হবে ‘চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আইটি পার্ক’।

২২ মে, বুধবার বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সভাকক্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এই বিষয়ক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।

এই সমঝোতার আওতায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ১০০ একর জমি আইটি পার্ক স্থাপনের জন্য বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষকে প্রদান করবে। এই ১০০ একর স্থান জুড়ে গড়ে তোলা হবে আইটি পার্ক।

জানা গেছে, এই আইটি পার্কে হার্ডওয়্যার, আইটি সার্ভিস এবং হার্ডওয়্যার নিয়েও কাজ করা হবে। আইটি পার্কের নির্মাণ কাজ শেষে এর কার্যক্রম পরিচালনা করবে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, পার্কে বিনিয়োগকারী, আইটি প্রতিষ্ঠান এবং স্থানীয় প্রশাসনের প্রতিনিধিদের মাধ্যমে গঠিত স্টিয়ারিং কমিটি। এই পার্ক থেকে অর্জিত রাজস্ব আইটি পার্কের ব্যবস্থাপনা, গবেষণা এবং ইনকিউবেশনে ব্যবহৃত হবে।

সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব) হোসনে আরা বেগম এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. ইফতেখার উদ্দীন চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক (যুগ্ম-সচিব) ড. খন্দকার আজিজুল ইসলাম বলেন, দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে আইটি/আইটিইএস শিল্পের বিকাশে এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে বেছে নিয়েছে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ ও কারিগরী শিক্ষার পাশাপাশি গবেষণা ক্ষেত্রেও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে। এই অঞ্চলে উচ্চ-প্রযুক্তির বিকাশে এই আইটি পার্ক ভূমিকা রাখতে পারবে বলে আমরা মনে করি।

প্রিয় প্রযুক্তি/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...