স্টুয়ার্ট ব্রড ও জেমস অ্যান্ডারসনের পুরানো ছবি। ছবি: সংগৃহীত

প্রথম দেখায় ব্রডকে মেয়ে ভেবেছিলেন অ্যান্ডারসন!

‘আমাদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়ে বেশ মিল আছে। সবাই প্র্যাকটিসের জন্য সকালে উঠতে চায়। ব্রড আর আমি চাই আরও আধা ঘণ্টা শুয়ে থাকতে। যতক্ষণ সম্ভব শুয়ে থাকার চেষ্টা করি আমরা।’

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৫ মে ২০১৯, ১৫:২৬ আপডেট: ২৫ মে ২০১৯, ১৫:২৬
প্রকাশিত: ২৫ মে ২০১৯, ১৫:২৬ আপডেট: ২৫ মে ২০১৯, ১৫:২৬


স্টুয়ার্ট ব্রড ও জেমস অ্যান্ডারসনের পুরানো ছবি। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ‘হায় ঈশ্বর, কি সুন্দরী!’— স্টুয়ার্ট ব্রডকে প্রথমবার দেখে জেমস অ্যান্ডারসনের অভিব্যক্তি ছিল এমন। আর হবেই বা না কেন? বাতাসে উড়ন্ত সোনালি চুল, শরীরের নিখুঁত গড়ন দেখে ব্রডকে যে মেয়ে ভেবেই ভুল করে বসেছিলেন অ্যান্ডারসন!

নিজের লেখা বই ‘বল.স্লিপ.রিপিট’-এ এই তথ্য ফাঁস করেছেন সাদা পোশাকে ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ এই উইকেটশিকারী!

ওই বইয়ে দীর্ঘদিনের বোলিং সঙ্গী সম্পর্কে ইংলিশ এই পেসার লিখেছেন, ‘যখন আমি প্রথম স্টুয়ার্ট ব্রডকে ড্রেসিংরুমের দিকে হেঁটে যেতে দেখি, তার উড়ুউড়ু সোনালি চুল, হৃদয়কাড়া নীল চোখ আর নিখুঁত গড়ন দেখে ভেবেছিলাম : হায় ঈশ্বর, সে কি সুন্দরী!’

গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে নতুন বলে জেমস অ্যান্ডারসনের নিয়মিত বোলিং সতীর্থ স্টুয়ার্ট ব্রড। এই দুজনের ঝুলিতে রয়েছে যথাক্রমে ৫৭৫ ও ৪৩৭টি উইকেট। দুজন মিলে ঝুলিতে পুরেছেন ১০০০ উইকেট। অবশ্য দুজনই খেলেছেন এমন ম্যাচ হিসাবে নিলে ১১১ টেস্টে এই দুজনের সম্মিলিত উইকেট হবে ৮৫১টি।

বলা হয়ে থাকে, বর্তমান সময়ে সাদা পোশাকে পেস বোলিংয়ে সবচেয়ে সফল জুটি অ্যান্ডারসন-ব্রড। তবে ব্রডকে কখনই প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবেননি অ্যান্ডারসন। বই ‘বল.স্লিপ.রিপিট’-এ এ নিয়ে অ্যান্ডারসন লিখেছেন, দুজনের মধ্যে বোঝাপড়াটা ছিল অসাধারণ।

এ নিয়ে অ্যান্ডারসন লিখেছেন, ‘‘আমরা দুজন একসঙ্গে ১০০০ হাজার উইকেট নিয়েছি, এটা আসলে অবিশ্বাস্য। আসলে আমাদের মধ্যে সেই মানসিকতাটা ছিল জুটি গড়তে যেটা প্রয়োজন। নিজেদের মধ্যে কথা বলা আমাদের খুব সাহায্য করেছে। যেমন - ‘এটা চেষ্টা করব?’ ‘না, পরিকল্পনা মতো বল করো’। আমরা সবসময়ই একে অন্যের বিষয়গুলো দেখভাল করেছি।’’

স্টুয়ার্ট ব্রড ও জেমস অ্যান্ডারসন। ছবি: সংগৃহীত

এই দুজনের মধ্যে বেশ মজার একটা মিল রয়েছে। আর তা হলো সকালে কেউই দ্রুত ঘুম থেকে উঠতে চাইতো না। এ নিয়ে ওই বইতে অ্যান্ডারসন লিখেছেন, ‘আমাদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়ে বেশ মিল আছে। সবাই প্র্যাকটিসের জন্য সকালে উঠতে চায়। ব্রড আর আমি চাই আরও আধা ঘণ্টা শুয়ে থাকতে। যতক্ষণ সম্ভব শুয়ে থাকার চেষ্টা করি আমরা।’

ব্রডকে দেখে শুরুতে অবশ্য অ্যান্ডারসন কোমল প্রকৃতির লোক মনে করেছিলেন। কিন্তু পরে তার ভুল ভাঙ্গে। ইংলিশ পেসার লিখেছেন, ‘প্রথমে আমার একটা ধারণা ছিল, ব্রড কিছুটা দুর্বল কোমল প্রকৃতির। তবে সে এমন নয়। সে কঠোর পরিশ্রম করে।’

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...