লাল জার্সিতে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা। ছবি: সংগৃহীত

যে ম্যাচগুলোতে লাল জার্সি পরে খেলবে বাংলাদেশ

হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে জার্সি দেখা যায় ফুটবলে। এবার ওয়ানডে বিশ্বকাপেও দেখা যাবে এমনটা।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৭ মে ২০১৯, ১০:১০ আপডেট: ২৭ মে ২০১৯, ১০:১০
প্রকাশিত: ২৭ মে ২০১৯, ১০:১০ আপডেট: ২৭ মে ২০১৯, ১০:১০


লাল জার্সিতে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জার্সি নিয়ে কতই না তুলকালাম ঘটে গেছে। আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মোচন করা জার্সির রং ও ডিজাইন তীব্র প্রতিবাদের মুখে পড়ে। পরবর্তী সময়ে ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবারের মতো জার্সিতে পরিবর্তন আনতে বাধ্য হয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সবুজ জার্সিতে লাল এবং লাল জার্সিতে সবুজ যুক্ত হয়।

এবার প্রশ্ন হলো কোন জার্সি পরে কোন ম্যাচ খেলা হবে? বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের দুটি ম্যাচ বাংলাদেশকে অ্যাওয়ে জার্সি বা লাল জার্সিতে দেখা যাবে। এই দুটি ম্যাচ হলো পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে।

হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে জার্সি দেখা যায় ফুটবলে। এবার ওয়ানডে ক্রিকেট বিশ্বকাপেও দেখা যাবে এমনটা। মূলত এবারের বিশ্বকাপে বেশিরভাগ দলের জার্সির রং এক বা কাছাকাছি হওয়ায় এই পথ বেছে নিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। যে কারণে ফুটবলের মতোই ওয়ানডে বিশ্বকাপেও এবার বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলঙ্কা, দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তানকে দুটি জার্সি পরে খেলতে হবে।

এই হিসাবে গ্রুপ পর্বের ৯টি ম্যাচের মধ্যে অন্তত ২টি ম্যাচে অ্যাওয়ে অর্থাৎ লাল জার্সি পরে খেলবে টাইগাররা। বাংলাদেশ, পাকিস্তান আর দক্ষিণ আফ্রিকার জার্সির রং প্রায় একই হওয়ায় এই দুই দলের বিপক্ষে লাল জার্সি পরে খেলতে নামবে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। কাকতালীয়ই বলা চলে, বিশ্বকাপের সূচি অনুযায়ী বাংলাদেশের গ্রুপপর্ব শুরু ও শেষ হবে এই লাল জার্সি দিয়ে!

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলার সময় ভারত-শ্রীলঙ্কা দুই দলকেই অ্যাওয়ে জার্সি পরতে হবে। নীল জার্সির ইংল্যান্ড এ ক্ষেত্রে স্বাগতিক দলের সুবিধা পাবে। ফলে তারা তাদের হোম জার্সি পরেই মাঠে নামবে। তবে সম্পূর্ণ ভিন্ন রঙের জার্সি থাকায় হোম বা অ্যাওয়ে জার্সির ঝামেলায় যেতে হয়নি নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও উইন্ডিজকে।

প্রিয় খেলা/রুহুল