কনিষ্ঠতম সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন চন্দ্রাণী মুর্মূ। ছবি: সংগৃহীত

চাকরি খুঁজতে এসে সংসদ সদস্য!

‘যন্ত্র প্রকৌশলবিদ্যায় স্নাতক শেষ করে আমি চাকরির খোঁজ করছিলাম। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হয়ে গেলাম পার্লামেন্ট সদস্য।’

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ২৭ মে ২০১৯, ১১:০৯ আপডেট: ২৭ মে ২০১৯, ১১:৫০
প্রকাশিত: ২৭ মে ২০১৯, ১১:০৯ আপডেট: ২৭ মে ২০১৯, ১১:৫০


কনিষ্ঠতম সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন চন্দ্রাণী মুর্মূ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) চন্দ্রাণী মুর্মূর বয়স ২৫। ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক। পড়াশোনা করেছেন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে। পড়া শেষে চাকরির খোঁজ করছিলেন। এমন সময়েই তার কাছে নির্বাচনে লড়ার একটা সুযোগ চলে আসে। দ্বিতীয়বার ভাবেননি। ভোটে লড়ার প্রস্তাবটা শেষমেশ গ্রহণ করে ফেলেন। এমনটাই জানিয়েছেন চন্দ্রাণী।

তিনি বলেন, ‘যন্ত্র প্রকৌশলবিদ্যায় স্নাতক শেষ করে আমি চাকরির খোঁজ করছিলাম। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হয়ে গেলাম পার্লামেন্ট সদস্য।’

ভারতের সপ্তদশ লোকসভার নির্বাচনের সাত দফার ভোটযুদ্ধ শেষে ফলাফল ঘোষণা করা হয় গত বৃহস্পতিবার। নির্বাচনে ওডিশার উপজাতি অধ্যুষিত জেলা কেওনঝড় থেকে লড়ে দেশটির কনিষ্ঠতম সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন চন্দ্রাণী মুর্মূ।

বিজু জনতা দলের টিকিটে কেওনঝড় থেকে এবারের লোকসভা নির্বাচনে দাঁড়িয়েছিলেন চন্দ্রাণী। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল দু’বারের জয়ী বিজেপি সাংসদ অনন্ত নায়ক। সেই অনন্ত নায়ককেই ৬৬ হাজার ২০৩ ভোটে হারিয়েছেন চন্দ্রাণী। আর সেই সঙ্গে কেনওঝড়ের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে তার পথ প্রশস্ত হয়ে চলে গিয়েছে সংসদের অন্দরে!

জানা যায়, যে সংসদীয় এলাকা থেকে চন্দ্রাণী দাঁড়িয়েছিলেন, সেখানে কর্মসংস্থান এবং উন্নয়নই উপজাতি মানুষগুলোর অন্যতম প্রধান চাহিদা। রাজনীতির অভিজ্ঞতা নেই, কিন্তু যে মানুষগুলোর সঙ্গে তার বড় হয়ে ওঠা, তাদের সমস্যার অভিজ্ঞতাটা তার অস্থিমজ্জায় রয়েছে। আর তাই একজন সাংসদ হিসেবে তার সর্বপ্রথম লক্ষ্যই হবে কেওনঝড়ে প্রচুর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা। জয়ের পর সংবাদমাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছেন কনিষ্ঠতম এই সাংসদ।

চন্দ্রাণী বলেন, ‘এটা দুর্ভাগ্যের বিষয় যে, কেওনঝড়ের মতো খনিজসমৃদ্ধ জেলায় কর্মসংস্থানের প্রবল অভাব।’ পাশাপাশি

তিনি এটাও জানান, তার জেলায় শিল্প আনতে চেষ্টার কোনো খামতি রাখবেন না। রাজ্যের যুব সম্প্রদায় ও নারীদের হয়ে কেন্দ্রে প্রতিনিধিত্ব করবেন।

প্রিয় সংবাদ/প্রান্তিক/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

নারী এমপিকে চড়...

প্রিয় ১ দিন, ২১ ঘণ্টা আগে

loading ...