অ্যারন ফিঞ্চের সঙ্গে প্রিন্স হ্যারির রসিকতা। ছবি: সংগৃহীত

অজি অধিনায়কের সঙ্গে ব্রিটিশ রাজপুত্রের ‘রসিকতা’

ফিঞ্চের সঙ্গে কেবল রসিকতা করেই থামেননি ব্রিটিশ রাজপুত্র।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ৩০ মে ২০১৯, ১৭:০৭ আপডেট: ৩০ মে ২০১৯, ১৭:০৭
প্রকাশিত: ৩০ মে ২০১৯, ১৭:০৭ আপডেট: ৩০ মে ২০১৯, ১৭:০৭


অ্যারন ফিঞ্চের সঙ্গে প্রিন্স হ্যারির রসিকতা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট দ্বৈরথ বেশ পুরনো। অ্যাশেজ এলেই ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার দ্বৈরথের পুরনো ঝাঁঝ টের পাওয়া যায়। এখানেই শেষ নয়; বছরজুড়ে দুই দলের ক্রিকেটার থেকে শুরু করে ভক্ত-সমর্থকরা পর্যন্ত একে অপরের পেছনে লেগে থাকেন। কোনো ইস্যুতে কেউ কাউকে খোঁচা দিতে পিছপা হন না। এবার সেই তালিকায় যোগ দিয়েছেন ডিউক অব সাসেক্স প্রিন্স হ্যারি!

২৯ মে, বুধবার ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের আমন্ত্রণে বাকিংহ্যাম প্যালেসে যান বিশ্বকাপের ১২তম আসরের ১০ দলের অধিনায়ক। বাকিংহ্যাম প্যালেসে যাওয়ার পর তাদেরকে অভ্যর্থনা জানান রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। রাজপরিবারের সদস্যরাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় অধিনায়কদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ডিউক অব সাসেক্স প্রিন্স হ্যারি! তিনিও অধিনায়কদের অভ্যর্থনা জানান এবং তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে কুশল বিনিময় করেন। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ককে সামনে পাওয়া মাত্রই খোঁচা মেরে বসেন হ্যারি। তবে সেটা ছিল নিতান্তই রসিকতার ছলে।

অ্যারন ফিঞ্চের সঙ্গে কুশলাদি বিনিময়ের সময় প্রিন্স হ্যারি তাকে জিজ্ঞেস করে বসেন, ‘মনে হচ্ছে খুব আশাবাদী (বিশ্বকাপ জয়ের ব্যাপারে) তুমি? কত দিন ধরে খেলছ?’

প্রিন্স হ্যারির এমন প্রশ্ন শুনে নিজেকে সংযত রাখতে পারেননি ফিঞ্চ। সেখানেই হেসে দেন অজি অধিনায়ক। এ সময় পাশে থাকা অন্যান্য দলের অধিনায়করাও নিজেদের হাসি আটকে রাখতে পারেননি।

ফিঞ্চের সঙ্গে কেবল রসিকতা করেই থামেননি ব্রিটিশ রাজপুত্র। অধিনায়কদের উদ্দেশ করে অনুপ্রেরণামূলক বার্তা দিতেও দেখা গেছে তাকে। এবারের বিশ্বকাপে ‘অনভিজ্ঞ’ দলের তকমা পাওয়া শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নেকে প্রিন্স হ্যারি বলেন, ‘উপভোগ করো। যদি তোমরা উপভোগ করতে না পারতে তবে এখানে হয়তো আজ উপস্থিতও হতে পারতে না।’

প্রিয় খেলা/রিমন