শান্তিতে নোবেলজয়ী মালালা ইউসুফজাই। ছবি: সংগৃহীত

ভারতকে খোঁচা পাকিস্তানের মালালার

খেলাটা নিছক মজার হলেও শেষ পর্যন্ত উত্তেজনা ছড়ান পাকিস্তানের মালালা ইউসুফজাই।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ০১ জুন ২০১৯, ১৭:৪১ আপডেট: ০১ জুন ২০১৯, ১৭:৪১
প্রকাশিত: ০১ জুন ২০১৯, ১৭:৪১ আপডেট: ০১ জুন ২০১৯, ১৭:৪১


শান্তিতে নোবেলজয়ী মালালা ইউসুফজাই। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ইংল্যান্ডে বসেছে বিশ্বকাপ। ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় এই আসর নিয়ে আয়োজক দেশের পরিকল্পনার শেষ নেই। আয়োজনের দিক থেকে ব্যতিক্রমী হতে সবসময়ের মতো এবারও ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছিল ইংল্যান্ড। তবে এর মধ্যে একটি চিরাচরিত আয়োজন ছিল ইংলিশদের। সেটা হলো রানি এলিজাবেথের সঙ্গে খেলোয়াড়দের সাক্ষাৎ করানো।

এরই ধারাবাহিকতায় ব্রিটেনের রানির সঙ্গে দেখা করতে বাকিংহাম প্যালেসে যান বিশ্বকাপের এবারের আসরে অংশ নিতে যাওয়া ১০ দলের অধিনায়ক। এখানেই শেষ নয়; উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে আয়োজন করা হয়েছিল ৬০ সেকেন্ডের মজার ক্রিকেট উৎসব। সেখানে অংশ নেন প্রতিটি দেশের দুজন করে প্রতিনিধি।

৬০ সেকেন্ডের ক্রিকেট উৎসবে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে প্রতিনিধিত্ব করেছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার আবদুর রাজ্জাক ও অভিনেত্রী জয়া আহসান। পাকিস্তান থেকে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ক্রিকেটার আজহার আলি ও সোশ্যাল এক্টিভিস্ট মালালা ইউসুফ। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত থেকে অংশগ্রহণ করেন সাবেক ক্রিকেটার অনিল কুম্বলে ও অভিনেতা ফারহান আক্তার।

মজার প্রতিযোগিতায় ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে বেশি রান তুলে জয়ী হয় স্বাগতিক ইংল্যান্ড। পাকিস্তানের পক্ষে আজহার আলি ও মালালা মিলে সংগ্রহ করেন ৩৮ রান। সেখানে ভারতের সংগ্রহ ছিল ১৯। তাতে ভারতকে পেছনে ফেলে প্রতিযোগিতায় সপ্তম স্থান অর্জন করে পাকিস্তান।

খেলাটা নিছক মজার হলেও শেষ পর্যন্ত মালালার কথায় কিছুটা উত্তেজনা ছড়ায়। এক প্রশ্নের উত্তরে শান্তিতে নোবেলজয়ী মালালা বলেন, ‘খারাপ নয়, আমরা পাকিস্তানের হয়ে বেশ ভালোই করেছি। আমরা সপ্তম হয়েছি। কিন্তু ভারত সবার শেষে।’

৬০ সেকেন্ডের এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের হয়ে ২২ রান তুলতে সক্ষম হন আবদুর রাজ্জাক ও জয়া। টুর্নামেন্টের ১০টি দলের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল নবম। ইংল্যান্ডের সবচেয়ে বেশি ৭৪ রান করেন দেশটির সাবেক ক্রিকেটার কেভিন পিটারসেন ও রিয়্যালিটি স্টার ক্রিস হগস। ৬৯ রান করে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল অস্ট্রেলিয়া।

প্রিয় খেলা/আজাদ চৌধুরী