মিচেল স্টার্কের একই ওভারে দুই বার গেইলকে আউট ঘোষণা করেন নিউজিল্যান্ডের আম্পায়ার গাফানি। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বকাপের মঞ্চে বিতর্কিত আম্পায়ারিং

দুই অনফিল্ড আম্পায়ারেরই দুটি করে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করতে হয়।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ০৭ জুন ২০১৯, ১৩:০৩ আপডেট: ০৭ জুন ২০১৯, ১৩:০৩
প্রকাশিত: ০৭ জুন ২০১৯, ১৩:০৩ আপডেট: ০৭ জুন ২০১৯, ১৩:০৩


মিচেল স্টার্কের একই ওভারে দুই বার গেইলকে আউট ঘোষণা করেন নিউজিল্যান্ডের আম্পায়ার গাফানি। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) অস্ট্রেলিয়া বনাম উইন্ডিজ ম্যাচের আম্পায়ারিং নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। অবশ্য প্রশ্ন ওঠাটাই স্বাভাবিক। উইন্ডিজের ব্যাটিংয়ের সময় এমন চারবার আউট দেওয়া হয়; যার প্রত্যেকটি রিভিউ ব্যাটসম্যানের পক্ষে যায়।

মিচেল স্টার্কের একই ওভারে দুইবার গেইলকে আউট ঘোষণা করেন নিউজিল্যান্ডের আম্পায়ার গাফানি। দুবারই এই রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ চান গেইল। দুবারই দেখা যায় তিনি এলবিডাব্লিউ হননি!

শেষ পর্যন্ত মিচেল স্টার্কের ফিরতি ওভারেই ১৭ বলে ২১ রান করে ফেরেন গেইল। এবারও রিভিউ নিয়েছিলেন; কিন্তু রিপ্লেতে দেখা যায় বল স্টাম্পে আঘাত করত। তবে সমস্যা হলো, আগের বলটা যে নো বল ছিল; যা আম্পায়ারের দৃষ্টি এড়িয়ে গেছে! আগের বলটি আম্পায়ারদের দৃষ্টি না এড়ালে এই বলে ফ্রি হিট পেতেন গেইল।

ইনিংসের চতুর্থ ওভারে স্টার্কের করা চতুর্থ বলটি ছিল একটি দুরন্ত ইয়র্কার। যেহেতু সেই বলে কোনো রান অথবা আবেদন হয়নি, তাই টিভি আম্পায়ারের সাহায্যও নেওয়া হয়নি। কিন্তু পরে দেখা যায় পপিং ক্রিজ থেকে স্টার্কের পা অনেকটা বেরিয়ে গিয়েছিল। সাধারণত যা চোখ এড়ানোর কথা নয়।

কিন্তু উপস্থিত আম্পায়ার ক্রিস গাফানির চোখ এড়িয়ে যায় সেই বল। এত বড় নো বল কীভাবে আম্পায়ারের দৃষ্টি এড়িয়ে যায় তা নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা। আম্পায়ার ক্রিস গাফানির এমন কাণ্ড দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। তাদের মতে, এটা অস্ট্রেলিয়ার প্রতি আইসিসির পক্ষপাতিত্ব।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে উইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার বলেন, ‘আমি অত্যন্ত দুঃখিত। কিন্তু এই ম্যাচের আম্পায়ারিং অনেক জঘন্য হয়েছে। এমনকি আমরা যখন খেলতাম তখনও নিয়ম এতো কঠোর ছিল না। আপনি একবার (ভুল আবেদন) করতে পারেন। আপনি দুবার, তিনবার, চারবার আম্পায়ারের কাছে আবেদন করতে পারেন না। এটি প্রথমবার দেখলাম।’

হোল্ডারের মতে, অস্ট্রেলিয়ার লাগাতার আবেদনের কারণেই বাজে আম্পায়ারিংয়ের দৃষ্টান্ত হয়ে থাকল অস্ত্রেলিয়া-উইন্ডিজ ম্যাচটি। এ নিয়ে তার ভাষ্য ‘(অস্ট্রেলিয়ার লাগাতার আবেদনের কারণে) তারা (আম্পায়াররা) আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তার মানে তারা দুর্বল। এটি দুই আম্পায়ারেরই খুব বাজে আম্পায়ারিং।’

অনফিল্ড আম্পায়ার ছিলেন ক্রিস গাফানি ও রুচিরা পাল্লিয়াগুরুগে, দুজনেরই দুটি করে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করতে হয়। ফলে আম্পায়ারিং নিয়ে সমালোচনা হওয়াটা স্বাভাবিকই মনে হচ্ছে বিশ্লেষকদের কাছে।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে স্টিভেন স্মিথ ও কোল্টার নাইলের ব্যাটিং দৃঢ়তায় ২৮৮ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় অস্ট্রেলিয়া। জবাবে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে উইন্ডিজ থামে ২৭৩ রানে। অজিরা ম্যাচ জিতে নেয় ১৫ রানে।

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

‘জিদান ফালতু লোক’

প্রিয় ১৩ ঘণ্টা, ৪৭ মিনিট আগে

loading ...