ছবি সংগৃহীত

৪৯ বছর পর দেখা...

রাজীব গান্ধী ও সোনিয়া গান্ধীরও আগে রাহুলকে নিজের কোলে টেনে নিয়েছিলেন রাজাম্মা।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০ জুন ২০১৯, ১০:৪০ আপডেট: ১০ জুন ২০১৯, ১০:৪২
প্রকাশিত: ১০ জুন ২০১৯, ১০:৪০ আপডেট: ১০ জুন ২০১৯, ১০:৪২


ছবি সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ১৯৭০ সালে প্রথম দেখা হয়েছিল, সেই স্মৃতি আজ মনে নেই। মনে না থাকারই কথা, কারণ সেটা ছিল মায়ের পেট থেকে দুনিয়াতে আসার পরের ঘটনা। তবে ৪৯ বছর পর তার দেখা পেলেন ভারতের বিরোধী দল কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। দেখেই যেন আবেগ ধরে রাখতে পারলেন না তিনি।

চলতি মাসেই জন্মদিন কংগ্রেস সভাপতির। তার আগেই নিজের কেন্দ্রে সফরে বেরিয়ে দেখা হয়ে গেল রাজাম্মা নামের এক নার্সের সঙ্গে। যে নার্স রাহুলের জন্মের সময় সোনিয়া গান্ধীর দেখভাল করতেন। ফলে স্বভাবতই আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন রাহুল। নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে সেই ছবি শেয়ারও করেছেন তিনি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, ভূমিষ্ঠ হওয়ার সময় দিল্লির হোলি ক্রস হাসপাতালে প্রসূতি সোনিয়া গান্ধীর দেখভালের দায়িত্বে ছিলেন নার্স রাজাম্মা। ৪৯ বছর পর সেই নার্সের সঙ্গে আবারো সাক্ষাৎ হলো কংগ্রেস সভাপতির। তাকে দেখেই জড়িয়ে ধরলেন রাহুল।

রাজাম্মা জানান, রাজীব গান্ধী ও সোনিয়া গান্ধীরও আগে রাহুলকে নিজের কোলে টেনে নিয়েছিলেন তিনি। তার কোলে চেপেই পৃথিবীর আলো দেখেছিল গান্ধী পরিবারের নব্য সদস্য। তারপর অনেকগুলো বসন্ত কেটে গেছে। রাহুলকে দূর থেকেই বড় হতে দেখেছেন তিনি। শুধু তাই নয়, রাহুলের রাজনৈতিক জীবনের চড়াই-উৎরাইয়ের সব খবরও রেখেছেন। এককালের ছোট্ট ফর্সা-টুকটুকে সেই রাহুল এখন দেশের নেতা। অবশেষে তার সঙ্গে দেখা করতে পারলেন রাজাম্মা। তার মুখ থেকে নিজের জন্মের কাহিনী শোনার পরই আবেগাপ্লুত হয়ে রাজাম্মাকে আলিঙ্গন করেন কংগ্রেস সভাপতি।

অবসরপ্রাপ্ত ওই নার্স জানান, অনেকদিন থেকেই রাহুলের সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছা ছিল তার। এ নিয়ে অনেক কংগ্রেস নেতাকে অনুরোধও জানিয়েছিলেন তিনি। অবশেষে তার সেই স্বপ্ন পূরণ হলো।

প্রসঙ্গত, ১৯৭০ সালে দিল্লির এক হাসপাতালে জন্ম হয় রাহুলের। এবারের নির্বাচনে আমেঠির পাশাপাশি কেরালার ওয়ানাড় থেকে লড়েন রাহুল। গান্ধী পরিবারের দুর্গ হিসেবে পরিচিত আমেঠিতে বিজেপির স্মৃতি ইরানির কাছে নজিরবিহীনভাবে হেরে যান রাহুল। এই কেন্দ্র থেকে তিনবার সাংসদ হয়েছেন তিনি। নির্বাচনে কংগ্রেসের ভরাডুবি হওয়ায় পরাজয়ের দায় নিয়ে নেতৃত্ব ছাড়তে চেয়েছিলেন রাহুল গান্ধী।

প্রিয় সংবাদ/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


loading ...